‘আদালতের নির্দেশনা মেনে চললে সড়ক দুর্ঘটনা কমে আসবে’- ইলিয়াস কাঞ্চন

১১:০৬ অপরাহ্ণ | রবিবার, ডিসেম্বর ১, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ
illias

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব (১৭) ও একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মিম (১৬) নিহতের ঘটনায় করা মামলায় জাবালে নূর পরিবহনের দুই চালকসহ তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

এই রায় ঘোষণার পর রোববার (০১ ডিসেম্বর) নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন বলেছেন, আদালতের নির্দেশনা মেনে চললে সড়ক দুর্ঘটনা অনেক কমে আসবে।

ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, যে রায় হয়েছে আদালতের প্রতি সম্মান জানিয়ে বলবো সুন্দর রায় হয়েছে। আরো কিছু নির্দেশনা দিয়েছেন আদালত সড়ক দুর্ঘটনা রোধ করার জন্য এটা একটা বড় ব্যাপার। এ রায় মেনে নেবে সবাই এবং জনসচেতনতা সৃষ্টি করবে যা এ ধরনের কর্মকাণ্ড কেউ যেন না করে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ২৯ জুলাই রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনে এমইএস বাসস্ট্যান্ডে জাবালে নূর পরিবহনের দুই বাসের পাল্লায় বাসচাপায় নিহত হন শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব (১৭) ও একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মিম (১৬)। আহত হয় আরও ১০-১৫ শিক্ষার্থী।

দুর্ঘটনার পরপরই সহপাঠীদের মৃত্যুর বিচার চেয়ে রাস্তায় নামেন শিক্ষার্থীরা। সে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে রাজধানীজুড়ে। এক পর্যায়ে তা হয়ে দাঁড়ায় সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানোর আন্দোলন। সে আন্দোলনে সমর্থন দেন সর্বস্তরের মানুষ।

দুর্ঘটনায় নিহত মীমের বাবা মো. জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেন। ৬ জনকে অভিযুক্ত করে মামলার চার্জশিট জমা দেয়া হয়। ছয় আসামির মধ্যে জাবালে নূরের মালিক জাহাঙ্গীর আলম, দুই চালক মাসুম বিল্লাহ ও জুবায়ের সুমন এবং তাদের সহকারী এনায়েত হোসেন কারাগারে রয়েছে। আরেক মালিক শাহাদাত হোসেন জামিনে রয়েছে। পলাতক আছেন সহকারী কাজী আসাদ।

Loading...