যুক্তরাষ্ট্রের উপর চীনের পাল্টা অবরোধ

১১:১৫ অপরাহ্ণ | সোমবার, ডিসেম্বর ২, ২০১৯ আন্তর্জাতিক
chaina

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ চীনের আপত্তি সত্ত্বেও হংকং বিক্ষোভের সমর্থনে যুক্তরাষ্ট্রের বিল পাসের প্রতিক্রিয়ায় এবারে নিউইয়র্কভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থাগুলোর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে বেইজিং। পাশাপাশি মার্কিন যুদ্ধজাহাজের হংকং পরিদর্শন বিষয়ক অনুরোধও নাকচ করেছে দেশটি।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক মানবাধিকার ও গণতন্ত্র নিয়ে কাজ করা বেশ কয়েকটি বেসরকারি সংস্থার উপর অবরোধ দিতে যাচ্ছে চীন৷ এই তালিকায় আছে এনডোমেন্ট ফর ডেমোক্রেসি, হিউম্যান রাইটস ওয়াচ, ফ্রিডম হাউস, ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক ইনস্টিটিউট এবং ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউট৷

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনয়িং জানিয়েছেন, চীনের প্রবল আপত্তিসত্ত্বেও মার্কিন কর্তৃপক্ষ তথাকথিত ‘হংকং মানবাধিকার ও গণতন্ত্র অ্যাক্ট’ পাস করেছে, এটি চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে ‘নাক গলানো’ ও আন্তর্জাতিক আইনের ঘোরতর লঙ্ঘন।

‘যুক্তরাষ্ট্রের এই অযৌক্তিক পদক্ষেপের প্রতিক্রিয়ায় আমরা হংকং পরিদর্শনে মার্কিন সামরিক জাহাজের আবেদন স্থগিত করেছি। একইসঙ্গে ‘হিউমান রাইটস ওয়াচ’, ‘ন্যাশন্যাল এনডোমেন্ট ফর ডেমোক্রেসি’, ‘ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইন্সটিটিউট’, ‘ফ্রিডম হাউজ’সহ বেশকিছু মার্কিন বেসরকারি সংস্থার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছি।’

চীনা এ কূটনীতিক আরও বলেন, আমরা যুক্তরাষ্ট্রকে আহ্বান জানাই নিজেদের ভুল শুধরে নিতে ও আমাদের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ না করতে। হংকংয়ের স্থিতিশীলতা ও সমৃদ্ধি রক্ষাসহ দেশের সার্বভৌমত্ব, নিরাপত্তা ও উন্নয়নের স্বার্থে যে পদক্ষেপই নেওয়া দরকার চীন সরকার সেসব পদক্ষেপই গ্রহণ করবে।

পাশাপাশি হংকংয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর পরিদর্শনও তারা বাতিল ঘোষণা করেছে৷

এর আগে গত সপ্তাহে হংকং নিয়ে দুটি বিল পাস করেছে ওয়াশিংটন৷ এর ফলে মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য ওয়াশিংটন হংকংয়ের উপর অবরোধ আরোপ করতে পারবে৷ ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে সেখানে যথাযথ স্বায়ত্তশাসন আছে কিনা তা পরীক্ষা করবে যুক্তরাষ্ট্র৷ আরেকটি আইন অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্র হংকংয়ে টিয়ারগ্যাস, পিপার স্প্রে, রাবার বুলেট, স্টেন গানসহ বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে ব্যবহৃত সামরিক সরঞ্জাম রপ্তানির উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে৷

সেই সময় এই আইনকে চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে ভয়ানক হস্তক্ষেপ এবং কর্তৃত্বপরায়ন আচরণ হিসেবে উল্লেখ করেছে দেশটি৷

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আমরা যুক্তরাষ্ট্রকে ইচ্ছামতো আচরণ না করার পরামর্শ দিচ্ছি, নয়তো চীন দৃঢ়ভাবে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। পরবর্তীতে দেশটিতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত টেরি ব্রানস্টাডকেও তলব করেছে তারা৷

Loading...