ভারতে ধর্ষকদের বিরুদ্ধে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের দাবি

২:২৭ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৩, ২০১৯ আন্তর্জাতিক
varot

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভারতের হায়দরাবাদে নারী প্রাণি চিকিৎসককে গণধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যায় ভারতজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় অব্যাহত রয়েছে। সোমবার নয়াদিল্লিসহ বিভিন্ন শহরে সাধারণ মানুষের বিক্ষোভ হয়। রাস্তায় নামেন বিভিন্ন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ। এর মধ্যেই মধ্যপ্রদেশে চার বছরের শিশুকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের পর হত্যার খবর পাওয়া গেছে।

আন্দোলনকরীদের অভিযোগ, ধর্ষকদের শাস্তি না হওয়ায় বার বার এ ধরনের অপরাধ ঘটছে। এ সময় ধর্ষকদের বিরুদ্ধের সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের মতো অভিযানের দাবি জানান তারা। হায়দরাবাদকাণ্ডের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে আরও বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। রাতে নারীকর্মীদের বাইরে কাজ বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। সমালোচকরা বলছেন, মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য প্রমাণ করে রাতের বেলা নারীদের সুরক্ষা দিতে অক্ষম সরকার।

অন্যদিক ধর্ষকদের জনসমক্ষে পিটিয়ে মারা উচিত বলে মনে করেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী এবং সমাজবাদী পার্টির এমপি জয়া বচ্চন। রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে গণপিটুনির পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেন তিনি।

তেলেঙ্গানায় নারী চিকিৎসককে হত্যার ঘটনায় যখন উত্তাল গোটা ভারত, সে সময়েই সামনে আসছে একের পর এক ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনা। রাজস্থানে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে ছয় বছরের এক শিশুকে। এছাড়া মধ্যপ্রদেশে একটি সেতুর নিচে ধর্ষণের পর খুন হয়েছে চার বছরের এক শিশু।

Loading...