সংবাদ শিরোনাম
জীবনসঙ্গিনী খুঁজে নিলেন চাহাল | এবার ১২০০ কোটি রুপি ব্যয়ে আকাশছোঁয়া ‘হনুমানের মূর্তি’ তৈরি হচ্ছে ভারতে | লাদাখ সীমান্তে উত্তেজনা বৃদ্ধি, আবারো চীনা সেনা মোতায়েনের দাবি ভারতের | হাজিদের পাথর নিক্ষেপে পদদলিত হয়ে মৃত্যু থামিয়ে ছিলেন এই বাংলাদেশি ইঞ্জিনিয়ার | লামায় ৯ বছরের শিশু ধর্ষিত, ধর্ষক আটক | পিরোজপুরে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের দুই ভুয়া কর্মকর্তা গ্রেপ্তার | বঙ্গমাতার জন্মদিন উপলক্ষে তানোরে সেলাই মেশিন বিতরণ | ‘করোনার চেয়েও বড় সংকট হয়তো সামনে আসছে’- বিল গেটস | সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিচার্জ | কাউখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের চেষ্টা, লম্পট গ্রেফতার |
  • আজ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ডাকসু নেতাদের কর্মকাণ্ড ও সান্ধ্যকালীন কোর্স ভালো লাগে না: রাষ্ট্রপতি

৪:৩৯ অপরাহ্ণ | সোমবার, ডিসেম্বর ৯, ২০১৯ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) নেতা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সান্ধ্যকালীন কোর্সের সমালোচনা করেছেন রাষ্ট্রপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আচার্য আবদুল হামিদ।

সোমবার (৯ ডিসেম্বর) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫২তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে লিখিত বক্তব্যের বাইরে গিয়ে তিনি এ সমালোচনা করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে গুচ্ছ পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ডাকসু নেতাদের সমালোচনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। তিনি বলেন, ‘এগুলো আমি কেন বলব? ডাকসুর নেতাদেরই তো এসব দাবি তোলার কথা। এটা আমাকে কেন বলতে হবে? এ দাবিগুলো তো ছাত্র নেতাদের করা উচিত। তারা এ ব্যাপারে কোনো কথা বলে না বরং তাদের ব্যাপারে অন্য এমন সব কথা শুনি যেগুলো আমার ভালো লাগে না। এর বেশি বলে আমি কাউকে হেয় করতে চাই না।’

এসময় আচার্য আবদুল হামিদ বলেন, ‘ডাকসু নেতাদের এমন কিছু করা উচিত যাতে সাধারণ ছাত্রদের কল্যাণ হয়। ’

ডাকসু নির্বাচনের সময় ওঠা অসঙ্গতির প্রতি ইঙ্গিত করে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘ডাকসু নির্বাচনের জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানিয়েছিলাম। তারা সেটা করেছে সেজন্য আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই। তবে নির্বাচনের সময় কিছু কিছু কথা বা অপ্রীতিকর ঘটনার কথা শুনেছি। আমি আশা করব ভবিষ্যতে যখন আবার ডাকসু নির্বাচন হবে তখন যাতে করে আরও সুন্দর আরও সুষ্ঠুভাবে এই ডাকসু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।’

সান্ধ্যকালীন শিক্ষা কার্যক্রমের অনিয়ম তুলে ধরে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আমি শুনেছি, তাদের একটা বিষয় ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস। এতে তাদের ২২টা কোর্স। প্রতি কোর্সে সাড়ে ১০ হাজার টাকা। এতে দুই লাখ ৩০ হাজার টাকার ওপরে হয়। এর অর্ধেক শিক্ষকরা পায়, আর অর্ধেক বিভাগ পায়। বিভাগের টাকা কী হয় জানি না, কিন্তু শিক্ষকরা পাচ্ছে। আমি এটাও জানি, যাদের শুধু পিএইচডি আছে, শুধু তারাই ক্লাস নেয়। এ ধরনের বিষয় আমার ভালো লাগে না।’

তিনি বলেন, অনেক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এখন দিনে সরকারি আর রাতে বেসরকারি চরিত্র ধারণ করেছে। বিশ্বদ্যিালয়গুলো সন্ধ্যায় মেলায় পরিণত হয়। এটা কোনোভাবেই কাম্য হতে পারে না।

এই বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে সান্ধ্যকালীন শিক্ষা কার্যক্রমের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য আহ্বান জানান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি বলেন, ‘মনে রাখবেন, বিশ্ববিদ্যালয় চলে জনগণের টাকায়। সুতরাং, এর জবাবদিহিও জনগণের কাছে।’

Skip to toolbar