গ্রামবাসীর অর্থায়নে তৈরি হচ্ছে মৌলা নদীর উপর ‘স্বপ্নের জনতা’ ব্রীজ

৮:০৪ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯ সিলেট
Jongoner takay Jonta briz

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জে মৌলা নদীর উপর নির্মিত হচ্ছে স্বপ্নের জনতা ব্রীজ । দোয়ারাবাজার উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের ধন মিয়া মেম্বার ও গ্রামবাসীর নিজস্ব অর্থায়নে চলছে ১২০ফিট লম্বা ব্রিজের নির্মাণ কাজ।

বুধবার (১১ ডিসেম্বর) বিকালে এলাকাবাসী স্বপ্নের জনতা ব্রীজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে উপস্থিত  ছিলেন, ইউপি সদস্য ধন মিয়া,সাবেক মেম্বার সুরুজ ভুঁইয়া, সাংবাদিক এম এ মোতালিব ভুঁইয়া, সমাজসেবক হাজী জুনাব আলী, মাহমদ আলী, কবির সরকার,মজি মিয়া,দরবেশ আলী,বদরুল ইসলাম,সুজন মিয়া, হুসেন মিয়া,নুরুল ইসলাম খা, জামাল মিয়াসহ গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিগন প্রমুখ।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান,দোয়ারা বাজার উপজেলার বাংলা বাজার ইউনিয়নের কলোনী গ্রামটি আশে পাশের গ্রামগুলো থেকে মৌলা নদীর উপর ব্রীজ না থাকায় সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। এ গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ ও কোমলমতি ছাত্র ছাত্রীরা বাশতলা চৌধুরীপাড়া শহীদস্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়,ইসলামপুর ছিদ্দিকিয়া দাখিল মাদ্রাসা, কলাউড়া ফাজিল মাদ্রাসা, বড়খাল স্কুল এন্ড কলেজ ও চৌধুরীপাড়া বাজার,হকনগর বাজার বাংলাবাজার ও বগুলা বাজার  যাওয়া আসার জন্য দুর্ভোগ পোহাতে হত সারা বছর। ফলে কলোনী গ্রামের মানুষ মৌলা নদীর উপর দিয়ে বাঁশের তৈরী সাকো দিয়ে দীর্ঘদিন যাবত যাতায়াত করে আসছে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে । এটাই ছিল গ্রামবাসীর  বাজার কিংবা স্কুলে আসার সহজ রাস্তা। সাকোর উপর দিয়ে স্কুল কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা ও অসুস্থ রোগীদের অনেক ভুগান্তিতে পড়তে হয় প্রতিদিন। অনেক সময় স্কুল কলেজে যাওয়া আসার সময় বই খাতা নিয়ে প্রায় পানিতে পড়ে যায় শিক্ষার্থীরা। তবে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পথ হওয়ায় সবাই এই নদীর উপর বাশের তৈরী সাকো দিয়ে যাতায়াত করতে বাধ্য হত। প্রতি বছর বাঁশ দিয়ে সাকো তৈরিতে হাজার হাজার টাকা নষ্ট করতে হয় ।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ধন মিয়া ও গ্রামের মানুষজন চাঁদা দিয়ে নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করায় ব্রীজের নাম দিয়েছেন স্বপ্নের জনতা ব্রীজ। প্রাথমিক অবস্থায় প্রায় ১০ লক্ষ টাকা খরচ করে ১২টি পিলার স্থাপনের মধ্যে দিয়ে কাজ শুরু হচ্ছে ।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ধন মিয়া জানান  এই কাজে স্থানীয় এমপিসহ জনপ্রতিনিধিরা যদি এগিয়ে আসতো তাহলে হয়তো তাদের যাতায়াতের স্বপ্নের জনতা  ব্রিজটি নির্মাণ আরো সহজ হতো। প্রবাসী, বিত্তবান, দানশীলসহ সবাইকে এগিয়ে আসার জন্য আহবান জানান তিনি।

Loading...