এশিয়ান টিভির সাবেক কর্মীরা বকেয়া পাওনা আদায়ে আন্দোলনে যাচ্ছে

৮:৩২ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৯ সমস্যা ও সমাধান
asian tv

মোঃমনির মন্ডল,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ অনেক দেনদরবারের পরও বকেয়া পাওনা বুঝিয়ে না দেওয়ায়, রাজপথে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছেন এশিয়ান টিভির অন্তত ৪০ সাবেক কর্মী। একুশে ডিসেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনের মাধ্যমে আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছেন তারা। কর্তৃপক্ষ সাড়া না দিলে কয়েক ধাপে কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। এরমধ্যে রয়েছে এশিয়ান টিভির সামনে মানববন্ধন ও লাগাতার অবস্থান, তথ্যমন্ত্রী ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান।

এশিয়ান টিভির সাবেক প্রডিউসার সোহেল পারভেজ শামসী জানান, ‘চ্যানেলটির কাছে সাবেক সব কর্মীরই বকেয়া পাওনা রয়েছে। অনেক চেষ্টা-তদবির করার পরও ম্যানেজমেন্ট এ ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ বরাবর দরখাস্ত করেও কোনো লাভ হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।’

জানা গেছে, এশিয়ান টিভির সাবেক ৪০ কর্মী নভেম্বরে তাদের বকেয়া বেতন-ভাতা ও অন্যান্য পাওনাদি বুঝিয়ে দিতে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান বরাবর দরখাস্ত দেন। কোনো সাড়াশব্দ না পাওয়ায় চলতি মাসে আরেকটি দরখাস্ত দেন তারা। কিন্তু এতেও কোনো কাজ হয়নি।

সাবেক কর্মীদের একজন সিনিয়র নিউজ এডিটর জাকির হোসেন। তিনি জানান, ১৮ই ডিসেম্বরের মধ্যে দাবি না মানলে, ২১ ডিসেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করবেন তারা। এর প্রস্তুতি হিসেবে বিভিন্ন গণমাধ্যমে লিফলেট বিতরণ করা হবে।

ন্যাশনাল ডেস্কের সাবেক ইনচার্জ বিশ্বজিৎ দত্ত ভৌমিক বলেন- বকেয়া বেতন, প্রতিমাসে কেটে রাখা টাকা ও শ্রম আইন অনুযায়ী ন্যায্য পাওনাদির দাবিতে আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। প্রেসক্লাবে মানববন্ধনের পরও সমস্যার সমাধান না হলে, এশিয়ান টিভির সামনে মানববন্ধন ও লাগাতার অবস্থানের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

সাবেক জয়েন্ট নিউজ এডিটর কাইমুল হক বলেন, তিনি দেড় লাখ টাকার বেশি পাবেন। কিন্তু এশিয়ান টিভির মালিকপক্ষ কিছুতেই এ টাকা পরিশোধ করছে না। তাই অন্যদের মতো তিনিও আন্দোলনে শরিক হয়েছেন। সাংবাদিক ইউনিয়নের সিনিয়র নেতারা এ আন্দোলনে সমর্থন দিয়েছেন বলে জানান তিনি।

বকেয়া পাওনাদির দাবিতে জোটবদ্ধ চ্যানেলটির সাবেক কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অন্তত ৬০ জন এশিয়ানের কাছে টাকা পাবেন। তাদের মধ্যে ৪০ জন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদের কাছে দরখাস্ত দিয়েছেন। তাদের মোট পাওনা ৪২ লাখ টাকার বেশি।

ব্রডকাস্ট বিভাগের সাবেক একজন সিনিয়র কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করে জানান, এশিয়ান টিভি বকেয়া টাকা বুঝিয়ে না দিলে, জোটবদ্ধ ৪০ জনের সবাই প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ঢাকার শ্রম আদালতে মামলা করবেন।

এ ব্যাপারে জানতে এশিয়ান টিভির চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদকে তার মোবাইল ফোনে কয়েকবার চেষ্টার পরও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

Loading...