কাশ্মীর ইস্যুতে জাকির নায়েকের সমর্থন চেয়েছিলেন মোদি!

১০:৩৬ অপরাহ্ণ | রবিবার, জানুয়ারি ১২, ২০২০ আলোচিত
jakir

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ জনপ্রিয় ইসলামিক বক্তা জাকির নায়েকের কাছে সমর্থন চেয়ে গোপন প্রস্তাব পাঠিয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

কাশ্মীর ইস্যুতে এবং ভারতের সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতি জাকিরকে সমর্থন করার প্রস্তাব দেন তারা। সেটি সম্ভব না হলেও সরাসরি মোদি ও বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে বক্তব্য বন্ধ করার প্রস্তাব দেন।

শনিবার এক ভিডিও বার্তায় জাকির নায়েক এ দাবি করেছেন। মোদি ও অমিত শাহের হয়ে কেন্দ্রীয় কর্মকর্তারা মুসলিম দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতিতে জাকিরকে কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন বলেও তিনি দাবি করেছেন।

ভিডিও বার্তায় জাকির নায়েক জানান, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের হয়ে তার সঙ্গে কেন্দ্রীয় কর্মকর্তারা যোগাযোগ করেছিলেন। তারা তাকে বলেন, মুসলিম দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতিতে কেন্দ্র তাকে কাজে লাগাতে চায়।

জাকির নায়েকের আরও দাবি, উত্তর ভারত নিয়ে কেন্দ্রের অবস্থানে সহমত হলে তার দেশে ফিরে আসতেও সমস্যা হবে না বলে মোদি সরকারের পক্ষ থেকে আশ্বস্ত করা হয়েছে। যদিও তিনি কেন্দ্রের সঙ্গে এ ধরনের কোনও সমঝোতায় যাননি বলেই জানিয়েছেন।

তার কথায়, ‘প্রথম আমি বলেছিলাম, কোরআন ও সুন্নাহর বিরোধী নয়, এমন যা-কিছু আছে আমি তা করতে প্রস্তুত। কিন্তু, যখন শুনলাম কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তকে আমায় সমর্থন জানাতে হবে, তখন সরকারের ওই প্রস্তাব আমি খারিজ করে দিই।’

জাকির নায়েক মনে করেন, ভারতের কোনও মুসলিম নেতা স্বেচ্ছায় সিএএ বা এনআরসিকে সমর্থন করবেন না। ভয় দেখিয়ে বা হুমকি দিয়ে তাদের থেকে সমর্থন আদায় করা হয়েছে।

সাম্প্রতিক সময়ে মালয়েশিয়ায় বেশ বিপাকে রয়েছেন ভারতীয় ধর্মপ্রচারক ও বক্তা জাকির নায়েক। ইতিমধ্যে দেশটির সব প্রদেশে তার ধর্মীয় বক্তব্য প্রদানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

প্রায় তিন বছর ধরে মালয়েশিয়ায় বসবাস করছেন জাকির নায়েক। সেখানে তাকে স্থায়ী নাগরিকত্ব দেয়া হয়েছে। তবে সাম্প্রতিক সময়ে নিজের বক্তব্যের কারণে তাকে মালয়েশিয়া থেকে ভারতে ফেরত পাঠানোর দাবি উঠেছে।

Loading...