• আজ ৭ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

দুটি ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতের পরও উড়ছিল বিমানটি

১২:৪৬ অপরাহ্ণ | বুধবার, জানুয়ারি ১৫, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- ইরানে ভূপাতিত ইউক্রেনের বিমানটিতে একটি নয়, দুটি ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হেনেছিল। ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতের পরও কিছুক্ষণ উড়ছিল বিমানটি। নতুন করে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে এমনটি দেখা যায় বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা।

নিউইয়র্ক টাইমস দাবি করেছে, তারা এ সংক্রান্ত সিকিউরিটি কামেরা ফুটেজ যাচাই-বাছাই করে দেখেছে। এতে দেখা যায়, ৩০ সেকেন্ডের ব্যবধানে দুটি ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছিল। এরপরও বিমানটি তাৎক্ষণিক মাটিতে আছড়ে পড়েনি।

ভিডিওতে দেখা যায়, বিমানটি মাটিতে পড়ে বিস্ফোরিত হওয়ার আগে কয়েক মিনিট আগুন লাগা অবস্থায় উড়ছিল। পত্রিকাটি দাবি করে, দ্বিতীয় ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতের আগে প্রথম ক্ষেপণাস্ত্র ওই বিমানের ট্রান্সপোন্ডার বিকল করে দেয়।

এদিকে বিধ্বস্ত বিমানটির ব্ল্যাক বক্স নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং কিংবা যুক্তরাষ্ট্রকে না দেয়ার কথা জানিয়েছে ইরান। বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বৈশ্বিক বিমান বিধিমালার অনুযায়ী এই ঘটনার তদন্তে নেতৃত্ব দেয়ার অধিকার ইরানের রয়েছে।

ইরানের বেসামরিক বিমান চলাচল সংস্থার প্রধান প্রধান আলী আবেদজাদেহ বলেন, আমরা ব্ল্যাক বক্সটি বিমানটির প্রস্ততকারক সংস্থা বোয়িং অথবা যুক্তরাষ্ট্রকে দেব না।

তিনি বলেন, এই দুর্ঘটনাটি ইরানের বিমান সংস্থা তদন্ত করবে তবে ইউক্রেন চাইলে উপস্থিত থাকতে পারে। আবেদজাদেহ বলেন, এটি এখনও পরিষ্কার নয় যে কোন দেশ বিমানের ব্ল্যাক বক্স বিশ্লেষণ করবে।

ইউক্রেন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের বোয়িং-৭৩৭ মডেলের বিমানটি তেহরানের ইমাম খামেনি বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের কিছুক্ষণ পরে বিধ্বস্ত হয়। এতে বিমানটির ১৭৬ যাত্রীর সবাই নিহত হন। বিমানটি ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের উদ্দেশে যাচ্ছিল। তবে ভুল করে ওই বিমানে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছিল স্বীকার করে দুঃখ প্রকাশ করেছে ইরান।

Loading...