বগুড়ায় ৮কোটি টাকায় নির্মিত ব্রীজ হুমকির মুখে

৭:৪৬ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, জানুয়ারি ১৮, ২০২০ রাজশাহী
Bogura Pic

সাখাওয়াত হোসেন জুম্মা, বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কর্তৃপক্ষের নজরদারির অভাব ও বৃষ্টির পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় কোন কোন স্থানে সংশ্লিষ্ট ব্রীজটির প্রায় অর্ধেক সড়ক বাঙ্গালী নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। বালু উত্তোলনের ফলে হুমকির মুখে পড়েছে ৮কোটি টাকায় নির্মিত ব্রীজ। ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে যানবাহন। তাই সড়কটি মেরামতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন এলাকাবাসি।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সারিয়াকান্দি উপজেলার ভেলাবাড়ী ইউনিয়নের জোড়গাছা বাঙ্গালী ব্রীজের পূর্ব পার্শ্বে ও পূর্বপাড়া ব্রীজের পূর্ব পাশের্^র সড়ক বাঙ্গালী নদীতে এবং চারমাথার পশ্চিম পার্শ্বে দুলু সরকারের বাড়ি সংলগ্ন ছোট ব্রীজের পূর্ব পার্শ্বে ভারি বর্ষণে প্রায় অর্ধেক সড়ক সংলগ্ন পুকুরে বিলীন হয়ে গেছে। দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে সড়কটি মেরামতে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) গড়িমসির কারণে ঝুঁকি নিয়ে যানচলাচল করছে। প্রায়শই ঘটছে দূর্ঘটনা আর এতে গুরতর আহত হচ্ছে স্কুল শিক্ষার্থী সহ সাধারণ জনসাধারণ। এলাকাবাসি-পথচারি ও গাড়ি চালকদের দাবি বাঙ্গালী ব্রীজের আশপাশ থেকে বালু উত্তোলন বন্ধ না করা হলে সড়কটি বাঙ্গালী নদী ও পুকুরে বিলীন হলে বগুড়া জেলা শহরের সাথে দক্ষিণ সারিয়াকান্দি তথা পূর্বাঞ্চলের যানচলাচল বন্ধ হয়ে যাবে।

এব্যাপারে জানতে চাইলে জোড়গাছা গ্রামের খোকা সরকার, আ:রহিম বলেন, সড়কটি পূর্ব বগুড়ার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সড়ক হলেও আজ সেটি বিলীনের পথে। জোড়গাছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আনোয়ার হোসেন বলেন, এ সড়ক দিয়ে আমাদের প্রতিনিয়ত চলাচল করতে হয়। কিন্তু সড়কটির বেশ কয়েকটি অংশের ভাঙ্গনে আমাদের অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। কয়েকদিন আগে আমার বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ভ্যান উল্টে গিয়েছিল। সিএনজি অটোরিক্সা চালক বাবু মিঞা বলেন, ব্রীজের পূর্ব পার্শ্বের ভাঙ্গনের কারণে আমাদের গাড়ি চালাতে খুবই সমস্যা হচ্ছে।

স্থানীয় বাসিন্দা এনামুল, শাহ্ জামাল, খোকন, মান্নান সহ আরও অনেকে বলেন, জোড়গাছা বাঙ্গালী ব্রীজের পূর্ব পাশের্ ও দুলু সরকারের বাড়ি সংলগ্ন ব্রীজটির পূর্ব পার্শ্বের ভাঙ্গন দীর্ঘদিনের। কিন্তু আমরা মেরামত ও সংস্কারে কর্তৃপক্ষের কোন প্রকার উদ্যোগ দেখছি না। ফলে এখানে প্রতিনিয়ত ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটছে, ব্রীজের আশপাশ থেকে বালু উত্তোলন বন্ধ করা খুবই জরুরী। এলাকাবাসি হিসাবে বলব যথাযথ কর্তৃপক্ষের দায়িত্বহীনতাই এর প্রধান কারণ।

এ ব্যাপারে ভেলাবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মো. রুবেল উদ্দীনের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, সড়কটি সংস্কার ও সংরক্ষণের দায়িত্ব স্থানীয় সরকার অধিদপ্তরের। তারপরেও আমার এলাকাবাসির সুবিধার জন্য বেশ কয়েকবার মেরামত করেছি।

এ ব্যাপারে সারিয়াকান্দি উপজেলা প্রকৌশলী মো. লিয়াকত আলীর সাথে মোবাইলে ফোনে কথা হলে তিনি সময়ের কন্ঠস্বরকে জানান, সম্ভবত সড়কটি মেরামতের জন্য আমরা ইতোমধ্যে তালিকা পাঠিয়েছি। তবুও না দেখে বলতে পারব না। তবে জোড়গাছা বাজারের পশ্চিম পার্শ্বের ছোট কালভার্টটির কাছে ভাঙ্গন মেরামতের কাজ আশা করছি এ মাসেই শুরু করা হবে।

Loading...