রিফাত হত্যা: মিন্নির আবেদন খারিজ

৬:১৩ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২১, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার আসামি আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি করা আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। আবেদনে আয়শা আসামি থেকে নিজের নাম বাতিল চান। আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি রিফাত শরীফের স্ত্রী।

বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ মঙ্গলবার আবেদনটি খারিজ করে দেন।

আবেদনটি ফিরিয়ে নিতে আয়শার আইনজীবীর আরজির পরিপ্রেক্ষিতে আদালত এই আদেশ দেন। আদালতে আয়শা সিদ্দিকার পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জেড আই খান পান্না ও মাক্কিয়া ফাতেমা ইসলাম। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এফ আর খান।

মিন্নির আইনজীবী মাক্কিয়া ফাতেমা ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে জানান, মামলাটি বরগুনার জেলা দায়রা জজ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এটি অন্য আদালতে বদলের জন্য উচ্চ আদালতে শিগগিরই আবেদন করা হবে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজ গেটের সামনে প্রকাশ্যে রিফাত শরীফকে কুপিয়ে জখম করে সন্ত্রাসীরা। মিন্নির সামনেই এ ঘটনা ঘটে। এরপর রিফাতকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে নেওয়ার পর সেখানেই তার মৃত্যু হয়। এরপর ২৭ জুন রিফাতের বাবা বাদী হয়ে বরগুনা থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। পরে মামলার অন্যতম আসামি নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়।

গত ১ সেপ্টেম্বর বিকেলে ২৪ জনকে অভিযুক্ত করে প্রাপ্তবয়স্ক ও অপ্রাপ্তবয়স্ক- এ দু’ভাগে বিভক্ত করে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে পুলিশ। এর মধ্যে প্রাপ্তবয়স্ক ১০ ও অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ জন।

এ মামলার চার্জশিটভুক্ত প্রাপ্তবয়স্ক আসামি মো. মুসা এখনো পলাতক রয়েছেন। এছাড়া নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি ও অপ্রাপ্তবয়স্ক আসামি প্রিন্স মোল্লা উচ্চ আদালতের আদেশে এবং বরগুনার শিশু আদালতের আদেশে মারুফ মল্লিক ও আরিয়ান হোসেন শ্রাবণ জামিনে রয়েছেন। আর বাকি আসামিরা কারাগারে।

১ জানুয়ারি রিফাত হত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালত। অন্যদিকে গত ৮ জানুয়ারি রিফাত হত্যা মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন বরগুনার শিশু আদালত।

Loading...