সংবাদ শিরোনাম
একুশে ফেব্রুয়ারিতে বাংলা ফন্ট উদ্বোধন করল জাতিসংঘ | শহীদ দিবসের ব্যানারে বীরশ্রেষ্ঠদের ছবি! | বাবাকে নিয়ে ইশরাকের আবেগঘন স্ট্যাটাস | অবশেষে বিটিআরসিকে এক হাজার কোটি টাকা দিতে রাজি হল গ্রামীণফোন | ‘ধনীদের উচিত গরীবদের বিয়ে করা’- ইন্দোনেশিয়ার সংস্কৃতিমন্ত্রী | ব্যস্ততার কারণে মাতৃভাষা দিবসে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা নিলেন বশেমুরকৃবির তিন শিক্ষক | ইউএনও’র অসদাচরণঃ শহীদ মিনারে ফুল দিলেন না মুক্তিযোদ্ধারা | নিজ হাতে তৈরী শহীদ মিনারে ফুল দিলেন প্রতিবন্ধী শিশুরা | নোবিপ্রবিতে নানা আয়োজনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত | যবিপ্রবিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত |
  • আজ ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

দশ বছরে ১৫৩ বিলিয়ন ডলার রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা

৭:২৭ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২১, ২০২০ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- বর্তমান সরকারের আমলে ২০০৯ সাল হতে ২০১৯ সাল পর্যন্ত গত ১০ বছরে বাংলাদেশের বেকার জনগোষ্ঠীর মধ্যে ৬৬ লাখ ৩৩ হাজার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কর্মী বৈদেশিক কর্মসংস্থান লাভ করেছে। এই ১০ বছরে প্রবাসীরা রেকর্ড সংখ্যক ১৫৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিট্রেন্স পাঠিয়েছেন।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) বিকেলে সংসদে টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তর পর্বে জাতীয় পার্টির সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য সালমা ইসলামের প্রশ্নের লিখিত জবাবে এ তথ্য জানান প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

মন্ত্রী জানান, ২০০৯ সাল হতে বর্তমান সরকারের দুই মেয়াদে ছয়টি ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজি ও ৬৪টি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রসহ মোট ৭০টি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের মধ্যেমে ৫৫টি ট্রেড দক্ষতা উন্নয়নে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া আরবি, কোরিয়ান, ইংরেজি, চাইনিজ (ক্যান্টিনিজ ও ম্যান্ডারিন) ও জাপানিজসহ মোট পাঁচটি ভাষায় শিক্ষা প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

সরকারি দলের সংসদ সদস্য আলী আজমের প্রশ্নের জবাবে ইমরান আহমদ জানান, বর্তমান সরকার তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতা গ্রহণের পর ২০১৯ সালে ১০৮টি দেশে ৭ লাখ ১৫৯ জন কর্মী পাঠানো হয়েছে। বাংলাদেশ হতে এ পর্যন্ত ১৭৩টি দেশে কর্মী প্রেরণ করা হচ্ছে।

বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের প্রশ্নের লিখিত জবাবে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে শ্রমিক পাঠানো অব্যাহত রয়েছে। একবছরের ব্যবধানে শ্রমিক পাঠানোর পরিমান বৃদ্ধিও পেয়েছে। বর্তমানে সৌদি আরবে ৩ লাখ ৯৯ হাজার শ্রমিক রয়েছে। এছাড়াও কাতারে ৫০ হাজার ২৯২ জন, কুয়েতে ১২ হাজার ২৯৯ জন, ওমানে ৭২ হাজার ৬৫৪ জন, সংযুক্ত আরব আমিরাতে ৩ হাজার ৩১৮ জন ও বাহরাইনে ১৩৩ জন শ্রমিক রয়েছে।

Loading...