চীনে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৬

৯:৫৮ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, জানুয়ারি ২৪, ২০২০ আন্তর্জাতিক
chai

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ চীনে নিউমোনিয়া সদৃশ নতুন করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৬ এ পৌঁছেছে। হুবেই প্রদেশজুড়ে ভ্রমণে কড়াকড়ি করা হচ্ছে। উহানসহ মোট ১০ টি শহরে বন্ধ করা হয়েছে সব ধরনের গণপরিবহন।

এ পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৮৮১। শুক্রবার স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর খবরে এই তথ্য জানানো হয় বলে জানিয়েছে তুরস্কের শীর্ষস্থানীয় সংবাদ সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি। মৃতদের বেশির ভাগই চীনের হুবেই প্রদেশের বাসিন্দা। প্রদেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কমপক্ষে ২৪ রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার হুবেই প্রদেশের বাইরে উত্তরাঞ্চলীয় হেবেই প্রদেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত প্রথম এক রোগীর মৃত্যু ঘটেছে। পরে আরেকজনের মৃত্যু নিশ্চিত হয়েছে উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় হেইলংজিয়াং প্রদেশে। চীনের বাইরে আরও ৭টি দেশে ভাইরাসটির অস্তিত্ব পাওয়া গেলেও সেখানে কারও মৃত্যুর খবর এখনো পাওয়া যায়নি।

চীনের বাইরে থাইল্যান্ডেই সবচেয়ে বেশি চার জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আক্রান্ত ব্যক্তির সন্ধান মিলেছে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, ভিয়েতনাম, সিঙ্গাপুর, তাইওয়ান এবং দক্ষিণ কোরিয়াতেও।

বৃহস্পতিবার চীনের ন্যাশনাল হেলথ কমিশন ভাইরাসটিতে আক্রান্তদের মধ্যে ১৭৭ জনের অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছে। ভারইস সংক্রমণের সন্দেহে আরও এক হাজার ৭২ জনের পরীক্ষ-নিরীক্ষা চলছে।

চীনা স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তারা নতুন ভাইরাসটিতে আক্রান্তদের ঘনিষ্ঠ নয় হাজার ৫০৭ জনকে পরীক্ষা করে আট হাজার ৪২০ জনকে চিকিৎসাধীন রেখেছেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) ইতোমধ্যে চীনে শনাক্ত হওয়া নতুন ভাইরাস নিয়ে বৈঠক করেছে। কিন্তু বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা জারি করেনি।

যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে আরোপ করা বিধিনিষেধের কারণে ৩৩ মিলিয়ন মানুষের চলাচল বিঘ্নিত হয়েছে।

চীনে মারাত্মক আকার ধারণ করলেও অন্যান্য দেশে এখন পর্যন্ত মাত্র ১৩ জনের শরীরে ভাইরাসটির উপস্থিতি পাওয়ায় পরিস্থিতিকে এখনই ‘বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা’ হিসেবে ঘোষণা না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা।

“ভুল করবেন না চীনে জরুরি অবস্থা সৃষ্টি করলেও এটি এখনি বিশ্বব্যাপী ভয়াবহ উদ্বেগের কারণ হয়ে উঠেনি, তবে হয়ে উঠতে পারে,” বলেছেন ডব্লিউএইচও-র প্রধান টেড্রস আধানম গ্যাব্রিয়েসুস।

Loading...