• আজ ১৫ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ঠিকানা জানেন না, ৪ মাস ধরে হাসপাতালে ভর্তি অন্তঃসত্ত্বা নারী!

৫:১০ অপরাহ্ণ | রবিবার, জানুয়ারি ২৬, ২০২০ দেশের খবর, রংপুর

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: ‘কখনও হাসেন, আবার কখনও কাঁদেন’ এমনি এক পরিচয়হীন অন্তঃসত্ত্বা নারী গত চার মাস ধরে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। নাম ঠিকানা কিছুই বলতে না পারায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ খুঁজে পাচ্ছেনা তার আত্মীয়স্বজনকে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালের মূল ফটকের সামনে অসুস্থ শরীর নিয়ে একটি পলিথিনের ওপর শুয়ে থাকতেন অজ্ঞাত ওই নারী। পরে সদর হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স চামেলী বেগম ওই নারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। বর্তমানে সদর হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার গাইনি ওয়ার্ডে তার চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অনেক চেষ্টা করেও ওই নারীর পরিচয় জানতে পারেনি। খুঁজে পায়নি তার কোনো আত্মীয়স্বজনকেও।

এদিকে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শারীরিক পরীক্ষা করে জানতে পেরেছেন ওই নারী অন্তঃসত্ত্বা। আগামী মার্চ মাসে ওই নারী সন্তান প্রসব করতে পারেন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

ওই নারী ভয়ে কাউকে কিছু বলতে পাচ্ছে না। কখনো হাসেন আবার কখনো কান্না করছেন। দিনদিন ওই নারী মানসিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ছেন। চিকিৎসকদের ধারণা পরিবারের পরিচয় পাওয়া গেলেই মানসিকভাবে তাকে সুস্থ করা যাবে। অন্তঃসত্ত্বা ওই নারী অবিবাহিত অথবা সদ্য বিবাহিত বলে ধারণা করছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের।

সদর হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডের ইনচার্জ সিনিয়র স্টাফ নার্স চামেলী বেগম বলেন, ‘প্রায় চার মাস আগে সদর হাসপাতালের মূল ফটকে শরীর খারাপ নিয়ে শুয়ে ছিল সে। পরে অন্তঃসত্ত্বা নারীকে হাসপাতালে এনে ভর্তি করেছি। তার পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা করা হচ্ছে। কেউ তাকে চিনে থাকলে হাসপাতালে অথবা ০১৭০৮৪১৪৬৯৩ এই নাম্বারে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করেন তিনি।

লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের সমাজসেবা অফিসার এরশাদ আলী বলেন, ‘বড় ধরনের মানসিক আঘাতের কারণে ওই নারীর এ অবস্থা হতে পারে। আমরা নারী সমাজকর্মী দিয়ে কাউন্সিলিং করে তার পরিচয় বের করার চেষ্টা করছি।’

লালমনিরহাট সিভিল সার্জন ডা. কাসেম আলী বলেন, ‘অন্তঃসত্ত্বা নারীকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষাসহ সব ধরনের সহযোগিতা করছে। যতদিন হাসপাতালে চিকিৎসা চলবে ততদিন তাকে সহায়তা করবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

Loading...