‘সরকারি জমিতে কোন মসজিদ করতে দেয়া হবেনা’- বিজেপি সাংসদ

৩:০৩ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৮, ২০২০ আন্তর্জাতিক
parb

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ১১ ফেব্রুয়ারি রাজ্যসভা নির্বাচনে দিল্লিতে বিজেপি ক্ষমতায় আসলে সরকারি জমিতে কোন মসজিদ করতে দেয়া হবেনা বলে জানিয়েছেন বিজেপি সাংসদ পশ্চিম দিল্লির সাংসদ পারবেশ সাহেব সিং ভার্মা। তিনি আরও বলেন, দিল্লির শাহিনবাগে সিএএর বিরুদ্ধে বিক্ষোভকারীদের ১ ঘণ্টার মধ্যে সরিয়ে দেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, “শাহিনবাগে রোজ লক্ষ লক্ষ লোক জড়ো হচ্ছে। ওরা একদিন আপনাদের বাড়িতে ঢুকে পড়বে। আপনাদের, বোন ও মেয়েদের ধর্ষণ করবে। খুন করবে। এখনও সময় আছে। আগামী দিনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীজি বা অমিত শাহ আপনাদের বাঁচাতে আসবেন না।”

এর আগে পরবেশ বর্মা দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বাইজালের কাছে অভিযোগ করেন, শহরের নানা জায়গায় বেআইনি মসজিদ ও সমাধিক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে। পরে দিল্লির সংখ্যালঘু কমিশন তদন্ত করে জানায়, এই অভিযোগ সত্য নয়।

শাহিনবাগের বিক্ষোভ নিয়ে এবার পাল্টা প্রচারে নামছে বিজেপি। দিল্লির এক বিজেপি নেতা বলেন, শাহিনবাগে ধর্নার জন্য ওই অঞ্চল দিয়ে যাতায়াত করা দুঃস্বপ্নের মতো হয়ে উঠেছে। বিশেষত সরিতা বিহার অঞ্চলের অবস্থা সবচেয়ে খারাপ। সেখানকার বাচ্চারা স্কুলে যেতে পারছে না। দোকানপাট খুলছে না।

সোমবার বিজেপির সভাপতি জে পি নাড্ডা আপের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, তাদের জন্যই কানহাইয়া কুমার, উমর খালিদ ও অন্যান্য দেশদ্রোহীদের ধরা যাচ্ছে না। এর আগে বিজেপির মুখপাত্র জি ভি এল নরসিংহ রাও বলেন, “আপ ও কংগ্রেসের সমর্থনেই দুষ্কৃতীরা দিল্লির রাস্তায় গোলমাল করেছে। কয়েক সপ্তাহ আগে তারা রাজধানীর জীবনযাত্রাকে স্তব্ধ করে দিয়েছিল। দিল্লিকে দেখে মনে হচ্ছিল বাগদাদ কিংবা দামাস্কাস।”

কেজরিওয়াল পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, “একথা সত্যি যে শাহিনবাগে রাস্তা বন্ধ থাকায় মানুষ সমস্যায় পড়ছেন। বিজেপি চায় না ওই রাস্তা খুলুক। তারা নোংরা রাজনীতি করছে।” তাঁর দাবি, বিজেপি নেতারা অবিলম্বে শাহিনবাগে যান। আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কথা বলুন। পথ খোলার ব্যবস্থা করুন।

উল্লেখ্যে ভারতের সংসদে পাস হওয়া সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনে ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে ধর্মীয় নির্যাতনের শিকার হয়ে এ দেশে আশ্রয় নেওয়া হিন্দু, খ্রিস্টান, শিখ, ফার্সি, জৈন ও বৌদ্ধ শরণার্থীদের ভারতীয় নাগরিকত্ব প্রদানের কথা বলা হয়েছে।

এক মাসেরও বেশি সময় ধরে, দক্ষিণ পূর্ব দিল্লির শাহিনবাগে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সমাবেশ করতে অবস্থান বিক্ষোভে বসেছেন বহু মানুষ। সেখানে অন্তত দুই শতাধিক মহিলাও যোগ দিয়েছেন। প্রতিবেশী তিনটি দেশ থেকে কেবলমাত্র অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার যে বিধান নাগরিকত্ব আইনে দেওয়া হয়েছে তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতেই ওই অবস্থান বিক্ষোভ।

Loading...