• আজ ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

‘পুরুষ নির্যাতনে ঘরে ঘরে টর্চার সেল, আইন নেই’

৩:০৮ অপরাহ্ণ | বুধবার, জানুয়ারি ২৯, ২০২০ দেশের খবর, রংপুর

নিজস্ব প্রতিবেদক, সময়ের কণ্ঠস্বর: টর্চার সেল শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ে নয়, পুরুষ নির্যাতনে ঘরে ঘরে টর্চার সেল রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন পুরুষ অধিকার নেতা সাংবাদিক নজরুল ইসলাম দয়া। তিনি বাংলাদেশ পুরুষ অধিকার ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় নেতা ও ঢাকা মহানগর কমিটির যুগ্ম আহবায়ক।

সম্প্রতি রাজধানীতে পুলিশ কনস্টেবল শাহ মোহাম্মদ আব্দুল কুদ্দুসের আত্মহত্যার প্ররোচণাকারীদের আইনের আওতায় আনাসহ সুষ্ঠু তদন্ত এবং পুরুষ নির্যাতন দমন আইনের দাবিতে রংপুরে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ মেনস রাইটস ফাউন্ডেশন।

বুধবার (২৯ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে রাজনৈতিক, সাংবাদিক, সামাজিক, ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা অংশ নেন।

সাংবাদিক নজরুল ইসলাম দয়া বলেন, দিনরাত ২৪ ঘন্টায় যে পুলিশ আপনাকে আমাকে নিরাপত্তা দেয়, তার নিরাপত্তা আগে দিন। মানসিক নির্যাতনে পুলিশ সদস্য আত্মহত্যা করেছে, মানসিক নির্যাতনে আপনি এবং আমিও আত্মহত্যা করতে পারি। তাই প্রতিকারে পুরুষ নির্যাতন দমন আইন জরুরি। নারীদের চেয়ে পুরুষরাই বেশি নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। টর্চার সেল শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ে নয়, পুরুষ নির্যাতনে ঘরে ঘরে টর্চার সেল রয়েছে। সেখানে মানসিক নির্যাতন চললেও পুরুষের পক্ষে আইন নেই।

এই দেশে নারী-পুরুষ সমানে সমান হলে, নারী নির্যাতনের আইন আছে কিন্তু পুরুষ নির্যাতনের আইন নেই কেন? প্রশ্ন রেখে পুরুষ নির্যাতন দমন আইন ও পুরুষ বিষয়ক মন্ত্রণালয় দাবি করেন নজরুল ইসলাম দয়া।

মেনস রাইটস’র জেলা কমিটি আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তৃতায় বাংলাদেশ পুরুষ অধিকার ফাউন্ডেশন (বিএমআরএফ) মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার ফারুক সাজেদ শুভ বলেন, বাংলাদেশে নারীদের পাশাপাশি পুরুষরাও ঘরে এবং বাইরে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। নারীদের জন্য মন্ত্রণালয়সহ দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সংস্থা আছে বলেই নারীদের বিষয়গুলো প্রকাশ পায়। পুরুষদের বিষয়ে মন্ত্রণালয় বা সংস্থা দুর্ভাগ্যবসত নেই, যেকারণে পুরুষদের পক্ষে কথা বলারও কেউ নেই।

এজন্য পুরুষের অধিকার আদায়ে পুরুষ নির্যাতন দমন আইনের পাশাপাশি পুরুষ বিষয়ক মন্ত্রণালয় করার জন্য সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করেন মেনস রাইটস ফাউন্ডেশনের মহাসচিব।

সংগঠনের রংপুর মহানগরের সদস্য সচিব সাখাওয়াত হোসেন সোহাগের সঞ্চালনায় বক্তৃতা দেন রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডল, রংপুর প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি মানিক সরকার, মেনস রাইটস’র জেলা কমিটির উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা আকবর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সোহেল সারোয়ার, রংপুর পুরুষ আইন বিষয়ক পরামর্শ কেন্দ্রের প্রধান পরামর্শক এডভোকেট শওকত আলী, সাংবাদিক আফতাব হোসেন, সাখাওয়াত হোসেন হানিফ, সাংস্কৃতিক কর্মী লিটন পারভেজ মান্না, রংপুর হিন্দু বৌদ্ধ ট্রাস্টের প্রতিনিধি বনমালি পাল, সহকারি ইঞ্জিনিয়ার রাশেদ খান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, পারিবারিক অশান্তিতে ২৩ জানুয়ারি রাজধানীতে পুলিশ কনস্টেবল শাহ মোহাম্মদ আব্দুল কুদ্দুস আত্মহত্যা করে। মিরপুর ১৪ নং সেকশনের পুলিশ লাইন মাঠের এক কোনায় পুলিশ কনস্টেবলের লাশ পড়ে ছিল। তার বাড়ি সিলেটের হবিগঞ্জে। আত্মহত্যাপূর্বে পুলিশ কনস্টেবল তার ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন।

তাতে তিনি লিখেছেন, আপনারা পাত্রী পছন্দ করার আগে পাত্রীর ‘মা’ ভালো কিনা সঠিকভাবে খবর নেবেন। কারণ পাত্রীর ‘মা’ ভালো না হলে পাত্রী কখনই ভালো হবে না। ফলে আপনার সংসারটা হবে দোজখের মতো। সুতরাং সকল সম্মানীত অভিভাবকগণের প্রতি আমার শেষ অনুরোধ, বিষয়টি বিশেষভাবে গুরুত্ব দেবেন।

Loading...