মাদ্রাসায় আটকে রেখে ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা, শিক্ষক আটক

৭:৪০ অপরাহ্ণ | শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১, ২০২০ খুলনা, দেশের খবর

মহসিন মিলন, বেনাপোল প্রতিনিধি- যশোরের শার্শায় তৃতীয় শ্রেণীর মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় লিয়াকত আলী নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষককে শুক্রবার রাতে আটক করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে শার্শা উপজেলার বেনেখড়ি গ্রামে। আটক শিক্ষক লিয়াকত আলী বেনেখড়ি গ্রামের মৃত ইউছুপ মোড়লের ছেলে। নির্যাতিত ছাত্রীর মা বাদি হয়ে শার্শা থানায় মামলাটি করেন। মামলা নং ২২।

পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত বৃহষ্পতিবার শার্শার বেনেখড়ি ফোরকানীয় মাদ্রাসার শিক্ষক ক্বারী লিয়াকত আলীর বিরুদ্ধে এক ছাত্রীর মা তার মেয়েকে ধর্ষণ চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করে শার্শা থানায় একটি মামলা করেন। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ শুক্রবার রাতে শিক্ষক লিয়াকত আলীকে আটক করে।

ছাত্রীর মা বলেন, গত ৩০ জানুয়ারী বুধবার তার মেয়েকে মাদ্রাসায় আটকে রেখে মাদ্রাসার শিক্ষক লিয়াকত আলী তাকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করতে গেলে তার চিৎকারে পাশবর্তী লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে। এ সময় পালিয়ে যান শিক্ষক লিয়াকত আলী। পরে ঘটনাটি সে তার মেয়ের মুখে শুনে শিক্ষক লিয়াকত আলীর বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে শার্শা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতাউর রহমান বলেন, শিক্ষক লিয়াকত আলীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে থানায় একটি মামলা হয়েছে। আটক আটককৃতকে আজ শনিবার সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।