‘১৫ কোটি মানুষের হাতে মোবাইল, এটাই ডিজিটাল বাংলাদেশ’- তথ্যমন্ত্রী

৫:৩৭ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২০ জাতীয়
tottho

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন আর স্বপ্ন নয়। ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে ১৫ কোটি মানুষের হাতে মোবাইল, এটাই ডিজিটাল বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে আগারগাঁওয়ের বাংলাদেশ বেতার ভবনে বিশ্ব বেতার দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ২০০৮ সালে আমরা দু’টি স্বপ্নের কথা বলেছিলাম। একটি ডিজিটাল বাংলাদেশ ও আরেকটি দিনবদলের কথা। দু’টিই বাস্তবায়িত হয়েছে।

তিনি বলেন, এখন ভোলার মনপুরা বা চর কুকরি-মুকরি থেকে ঢাকায় টেলিমেডিসিন সেবা হয়। ঢাকায় একজন কৃষক গাছে কোন পোকা লেগেছে সেটি ছবি তুলে জেলা কৃষি অফিসে পাঠান এবং মোবাইল ফোনে কৃষি অফিস থেকে পরামর্শ নেন, এটাই ডিজিটাল বাংলাদেশ।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, দিনাজপুরের বা টেকনাফের যে রিকশাওয়ালা ভাই ঢাকায় রিকশা চালায় বা যে ঢাকায় চাকরি করে, গ্রামে তার পরিবারের পাঁচশ’ টাকা দরকার হলে সে মোবাইল ফোনে টাকাটা পাঠিয়ে দিচ্ছে। এটাই ডিজিটাল বাংলাদেশ।

তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন আর স্বপ্ন নয়। কোনো সামাজিক অনুষ্ঠানের ১১ বছর আগের ভিডিও ক্লিপ থাকলে দেখতে পাবেন। তখনকার ক্লিপ আর আজকের ক্লিপ অনেক চাকচিক্যময়।

বাংলাদেশ খাদ্যের অভাব নেই উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে এখন আর মঙ্গা হয়না। মঙ্গা শব্দটি এখন বইয়ের পাতায় সীমাবদ্ধ, বাস্তবে এর কোনো অস্তিত্ব নেই।’

তিনি বলেন, ‘আমরা একটা ক্ষুধামুক্ত দেশ রচনা করেছি। ক্ষুধাকে জয় করেছি। আমি মনে করিনা এখন আর ক্ষুধামুক্ত দেশ গড়ার স্লোগান দেয়ার দরকার আছে।’

দেশের মানুষ পর্যাপ্ত পরিমানে খাবার পাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘শহরের অলি-গলিতে কিংবা গ্রাম গ্রামান্তরে শোনা যায়না মাগো খুব ক্ষুধা লেগেছে, একটু বাসি ভাত খাবো। বাসি ভাতের সমস্যা আমরা সমাধান করেছি। দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্ণ। আমরা এখন খাদ্য রফতানি করছি। এমন কি চাল রফতানি করলে সরকার ইনসেনটিভ দিবে।’

এতে আরো উপস্থিত ছিলেন তথ্য সচিব কামরুন নাহার, বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক হোসনে আরা তালুকদার প্রমুখ।

Skip to toolbar