• আজ ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ট্রাম্পের ভয়ে ফিলিস্তিনি ইস্যুতে বাংলাদেশ চুপ কিনা? প্রশ্ন মেননের

১০:১৭ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২০ জাতীয়
menon (1)

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ ফিলিস্তিন নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সম্প্রতি একটি পরিকল্পনা করেছেন যা ফিলিস্তিনিদের ওপর আঘাত হানতে পারে বলে মনে করছেন ওয়াকার্স পার্টির চেয়ারম্যান রাশেদ খান মেনন। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতি দেশটির পক্ষে, কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্পের পরিকল্পনার পরেও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিরবতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের এই পরিকল্পনা ফিলিস্তিন সরকার, ওআইসি, ইউরোপীয় ইউনিয়ন প্রত্যাখ্যান করেছে। বাংলাদেশ সবসময় ফিলিস্তিনের পক্ষে দাঁড়ালেও এই পরিকল্পনার ব্যাপারে বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত কোনও শব্দ উচ্চারণ করেনি। ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভয়ে বাংলাদেশ চুপ কি না?

বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে এই দাবি জানান।

মেনন বলেন, ‘ফিলিস্তিন নিয়ে বাংলাদেশের নীতি হলো, তাদের স্বাধীনতা সংগ্রামকে সমর্থন করা। সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে সঙ্গে নিয়ে ফিলিস্তিন সম্পর্কে একটি পরিকল্পনা প্রকাশ করেছেন। সেখানে ফিলিস্তিনকে ইসরাইলের হাতে তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ পরিকল্পনায় ফিলিস্তিনের যতটুকু জমি রয়েছে সেটা পুরনো ফিলিস্তিনের মাত্র ১২ শতাংশ।’

বাংলাদেশের নীরবতার সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘কিছুদিন পর ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারতে আসবেন। সেখানে মোদির সঙ্গে মিলে এই অঞ্চলের ভাগ্য নির্ধারণ করবেন। সেখানে বাংলাদেশ কোন অবস্থায় থাকবে, এই ভয়ে বাংলাদেশ ভীত কি না, জানি না।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেনের সমালোচনা করে মেনন বলেন, ‘দুদিন আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সংসদে বক্তৃতা দিয়েছেন। তিনি অর্থনীতির কথা বলেছেন। কিন্তু সীমান্তে হত্যা, পররাষ্ট্রনীতির কথা, ফিলিস্তিনের সমস্যার কথা তার বক্তব্যে ছিল না। সুদূর ভবিষ্যতে নাকি রোহিঙ্গা সংকটের একটি সমাধান আসবে। অদূর ভবিষ্যতে নয়।’

মেননের বক্তব্যের পর ৩০০ বিধিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ফিলিস্তিন সম্পর্কে বাংলাদেশের যে নীতি ছিল, সেটা এখনও বহাল আছে।’ এ নিয়ে সন্দেহে কোনও কারণ নেই বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

Loading...