• আজ ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সাভারে মাদকাসক্তি নিরাময়কেন্দ্রে রোগীকে পিটিয়ে হত্যা!

১০:২১ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২০ ঢাকা, দেশের খবর

মোঃ মনির মন্ডল, নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার- মাদক থেকে বাঁচতে সাভারে নিরাময় কেন্দ্রে ভর্তি হয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন জাহাঙ্গীর হোসেন নামে হোটেল ব্যবসায়ী এক যুবক। চিকিৎসার নামে চোখ বেঁধে রাতভর নির্যাতনের অভিযোগ নিরাময় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে।

মাদক আসক্ত যুবককে সুস্থ জীবনে ফিরে পেতে পরিবার স্বপ্ন নিয়ে গত বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় ভর্তি করেছিলেন সাভারের ‘নিউ আদর মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে’। তবে ভর্তির একদিন না যেতেই শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সাভারে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জাহাঙ্গীর হোসেনের নিথর দেহ মিলে স্বজনদের। কি এমন চিকিৎসা বা নিয়মের বেড়াজালে পড়তে হয়েছে জাহাঙ্গীরকে সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজে তারা।

শুক্রবার বিকেলে খবর পেয়ে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ময়না তদন্তের জন্য ঢাকার সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে এ ঘটনায় নিরাময় কেন্দ্রের রবিউল হোসেন ও লাবিব আহমেদ নামে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রবিউল ইসলাম ধামরাইয়ের ছোট চন্দ্রাই গ্রামের আনোয়ার হোসেনর ছেলে। অপরদিকে লাবিব আহমেদ টাঙ্গাইলের আশোলাই গ্রামের আবদুস সোবাহানের ছেলে। তারা দুই নিরাময় প্রতিষ্ঠানের ট্রেইলানিং প্রশিক্ষক ছিলেন।

নিহত জাহাঙ্গীর খানের গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর থানার বড়াইকান্দি এলাকায়। সে সাভারের ব্যাংক কলোনী এলাকায় পরিবার নিয়ে ভাড়া থেকে দীর্ঘ দিন যাবৎ সাভার থানা রোডে খাবার হোটেলের ব্যবসা করে আসছিল।

এ বিষয়ে নিহতের ভাই মানিক মিয়া জানান, ভালো হওয়ার জন্য দিয়েছিলাম, তারাই বাসা থেকে নিয়ে যায়। রাতে খবর নিলে তারা ভালো আছে। পরে সকালে এনামে হাসপাতালে নিথর দেহ পাই। তারা চিকিৎসার নামে মানুষ হত্যা করছে। প্রশাসেনর কাছে এর দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি চাই।

এদিকে, ওই মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রের অন্যান্য রোগীদেরও মধ্যে এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, নিহত জাহাঙ্গীরকে রাতভর মুখে গামছা বেঁধে তার ওপর চাদর মুড়িয়ে নির্যাতন করা হয়েছে।

এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. মোহাম্মদ পাভেল বলেন, রোগীকে আমরা মৃত অবস্থায় পেয়েছি। তবে ময়না তদন্ত রিপোর্ট পাওয়া গেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

এ বিষয়ে সাভার মডেল থানার (এসআই) মুনিরুজ্জমান মোল্লা বলেন, প্রাথমিক সুরহাতালে নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এই ঘটনায় নিহতের ভাই বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

Loading...