সংবাদ শিরোনাম
যুক্তরাজ্যে ৪৩১৩ জনের প্রাণ কেড়ে নিল করোনা | মৃত্যুপুরী ইতালিতে আরও ৬৮১ জনের মৃত্যু | রাজধানীর কারওয়ান বাজারের কলাপট্টিতে আগুন | করোনা মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা রোববার | ১১ই এপ্রিল পর্যন্ত পোশাক কারখানা বন্ধ রাখার আহ্বান বিজিএমইএ সভাপতির | শরীয়তপুরে জ্বর-মাথা ব্যথা নিয়ে এক নারীর মৃত্যু, ন‌ড়িয়ায় ক‌রোনা আক্রান্ত হ‌য়ে বৃ‌দ্ধের মৃত্যু | করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশকে ৮৫০ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক | সৈয়দপুরে জীবাণুনাশক স্প্রে করল সিএসআর উইন্ডো বাংলাদেশ | প্রতিদিন ১০ হাজার মানুষের খাবারের ব্যবস্থা করলেন গাঙ্গুলী | করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬১ হাজার, আক্রান্ত সাড়ে ১১ লাখ |
  • আজ ২২শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

খুলনায় ভালোবাসা দিবসে স্কুলছাত্রীকে ৩ বন্ধু মিলে রাতভর ধর্ষণ

১২:১৩ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০ খুলনা, দেশের খবর

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- খুলনার দিঘলিয়ায় ভালোবাসা দিবসে বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে বেরিয়েছিলেন সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রী। কিন্তু বন্ধুত্বের সরল বিশ্বাসের কাছে প্রতারিত হলেন তিনি। সারাদিন ঘুরে বেড়ানোর পর তিন বন্ধু পালাক্রমে ধর্ষণ করেছে তাকে।

১৪ই ফেব্রুয়ারির এ ঘটনার দৃশ্য ভিডিও ধারণ করে তারা। সেই ভিডিও দিয়ে মেয়েটিকে ফাঁদে ফেলারও চেষ্টা করে। উপজেলার চন্দনীমহল এলাকার ওই ছাত্রীকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ ঘটনায় পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। এছাড়া আরও দুই ধর্ষককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছিল। তবে ধর্ষণের দৃশ্য ভিডিওতে ধারণকারীকে আড়াল করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। একই সঙ্গে ভিডিওটি গায়েব করে দেয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।

একাধিক সূত্র জানায়, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দৌলতপুরে ফুপুর বাড়ি থেকে সপ্তম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে নিয়ে ঘুরতে বের হয় চন্দনীমহল এলাকার শাহিন (২৬) ও তার বন্ধু কাজল ও তাজুল মল্লিক। রাতে বিভিন্নস্থানে ঘুরে বেড়ানোর পর শাহিন ও তার বন্ধুরা চন্দনীমহল এলাকায় জনৈক শরিফুলের বাড়িতে নিয়ে মেয়েটিকে রাতভর ধর্ষণ করে। শনিবার তাকে কাটাবন এলাকায় ফেলে দিয়ে যায়। সেখান থেকে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে।

রাতভর ধর্ষণের সেই দৃশ্য ভিডিও ধারণ করে শরিফুল। সেই ভিডিও দিয়ে মেয়েটিকে সে ফাঁদে ফেলার চেষ্টা করে। এ বিষয়ে গতকাল সোমবার বিকেলে মামলা হয়েছে। মামলায় শাহিন, কাজল ও তাজুলের নাম থাকলেও রহস্যজনকভাবে শরিফুলের নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি।

এ বিষয়ে দিঘলিয়া থানা পুলিশের ভারাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মঞ্জুর মোর্শেদ বলেন, তিনজনকে আসামি করে মামলা দায়ের হয়েছে। শাহিন নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি দুই আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

তবে শরিফুলের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি প্রথমে এড়িয়ে যাবার চেষ্টা করেন। পরে বলেন, তদন্তে দেখা যাবে কে কে জড়িত রয়েছে।

Loading...