সংবাদ শিরোনাম
করোনার প্রকোপ কমে আসছে বাংলাদেশে: জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয় | ‘বিশ্বকাপের বদলে আইপিএল হলে প্রশ্ন উঠবেই’- ইনজামাম | গত ২৪ ঘন্টায় যুক্তরাষ্ট্রের চেয়েও বেশি মৃত্যু ভারতে | বাংলাদেশিসহ বিশ্বের ১১ লক্ষাধিক শিক্ষার্থীকে যুক্তরাষ্ট্র ত্যাগের নির্দেশ | একদিনে রেকর্ড সংক্রমণে যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়াল | করোনা কেড়ে নিল আরও ৫৫ প্রাণ, নতুন শনাক্ত ৩০২৭ | সিলেটে হত্যাচেষ্টা মামলায় হাসপাতালের অফিস সহকারী নূর মোহাম্মদ জেলে | বাংলাদেশে ডাল চাষের সমস্যা ও সম্ভাবনা | কোটালীপাড়ায় পৈত্রিক ভিটায় ‘প্রার্থনা কুঞ্জ’ করতে চেয়েছিলেন এন্ডু কিশোর | নোয়াখালীতে ছয় মাসে ‘৫৪ ধর্ষণ’! |
  • আজ ২৩শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শহীদ দিবসের ব্যানারে বীরশ্রেষ্ঠদের ছবি!

১২:১৩ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ
poli

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের ব্যানারে বীরশ্রেষ্ঠ খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের ছবি ব্যবহার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে ডিএমপি।

ব্যানারটির ওপরে লেখা আছে- আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০২০। তার নিচে স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদ ৭ বীরশ্রেষ্ঠর ছবি। আর ছবির নিচে লেখা- আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদদের প্রতি আমাদের বিনম্র শ্রদ্ধা। তার নিচে ব্লক অক্ষরে লেখা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। ব্যানারের ওপরের ডান কোণে মুজিববর্ষের লোগো এবং বাম পাশে ওপরে ও নিচে ডিএমপির দুটি লোগো ছিল।

ছবিটি দেখার পর এটিকে সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বজ্ঞানহীনতা বলে সমালোচনা করেছেন অনেকে।

রিয়াজুল ইসলাম নামে একজন লিখেছেন, ব্যানারে কয়েকজন ভাষাসৈনিকের ছবি ব্যবহার করতে পারতো। কিন্তু, বীরশ্রেষ্ঠদের ছবি কেন ব্যবহার করা হলো সেটা বুঝতে পারলাম না।

ফয়েজ আহমেদ নামে একজন লিখেছেন, তারা মাতৃভাষা দিবসের জন্য একটা ব্যানার বানালো অথচ বীরশ্রেষ্ঠ আর ভাষা সৈনিকদের মধ্যে পার্থক্যই বোঝে না।

শাশ্বত সত্য নামে একজন লেখেন, পুলিশের মতো সংস্থার কাছ থেকে এমন ভুল সত্যিই দুঃখজনক। তবে কেউ ইচ্ছাকৃত এমন কাজ করেছেন কিনা সেটাও ডিএমপির খুঁজে দেখা উচিৎ।

পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা জানান, এই ব্যানারটি টানানো হয়েছিল সেটি সত্য। তবে পরে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এটি এখন আর নেই।

এ বিষয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসুদুর রহমান বলেন, ‘এরকম ব্যানার আমাদের টাঙানোর কথা না। কীভাবে এই ব্যানারটি তৈরি করা বা টানানো হয়েছিল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’