জেদ করেই যৌনতাকে পেশা হিসেবে নিয়েছেন পরিচালকের মেয়ে

১:৫৬ অপরাহ্ণ | শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২০ বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক- হলিউডের বিখ্যাত পরিচালক স্টিভেন স্পিলবার্গ। ইটি, জস, জুরাসিক পার্ক, ওয়ার অব দ্য ওয়ার্ল্ডসের মতো বিখ্যাত সব সিনেমা উপহার দিয়েছেন তিনি। এক কথায় তার সিনেমা বিশ্ব মাতিয়েছে। তার মেয়ে নায়িকা না হয়ে নাম লিখিয়েছেন পর্নো ইন্ডাস্ট্রিতে। তাতেও নাকি উৎসাহ দিয়েছেন তার বাবা।

এক সাক্ষাৎকারে ২৩ বছর বয়সী পর্নোতারকা মিকায়েলা এসব তথ্য জানিয়েছেন। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে মিকায়েলার সাক্ষাৎকার প্রকাশ হওয়ার পর চমকে গেছেন অনেকেই।

মিকায়েলা জানান, তার বাবার সঙ্গে আলোচনা করেই পর্নোকে ক্যারিয়ার হিসেবে বেছে নেন তিনি। প্রথমে নিজেই পর্নোভিডিও তৈরি করছেন। বাবা পরিচালক স্টিভেন স্পিলবার্গ নিজেও নাকি তার কাজে সমর্থন দিয়েছেন।

তিনি জানান, যৌনতার প্রতি আমার ভীষণ ঝোঁক থাকায় অনেকবার সমস্যায় পড়েছি। এরপর একরকম জেদ করেই যৌনতাকে পেশা হিসেবে নিয়েছি। আমার মনে হয়েছে, অনেকেই যৌনতা পছন্দ করলেও এগুলো প্রকাশ করতে স্বাচ্ছন্দবোধ করে না। কিন্তু আমি ভেবেছি অন্যভাবে।

‘আমার কাছে সহজ হিসাব এতে প্রচুর টাকা আয় হবে। আমি মানুষকে গর্বের সঙ্গে বলব, নিজের শরীরকে ব্যবহার করে আমি কিছু ভুল করিনি।’

মিকােলা স্পিলবার্গ স্বীকার করেছেন যে একটা সময় তিনি মদ্যপানের সাথেও লড়াই করে যাচ্ছিলেন তবে এখন তিনি আরও ভাল জায়গায়। “আমি এই মুহুর্তে ভাল জায়গায় আছি তবে আমাদের সবার পুনরায় সংযোগ রয়েছে। এভাবে খোলামেলা হওয়া এবং আমার গল্পটি ভাগ করে নেওয়া এবং এই ক্যারিয়ারটি বেছে নেওয়া আমার জন্য পুনরায় সংযোগ নয়।

মিকায়েলাকে পরিচালক স্পিলবার্গ দত্তক নিয়েছিলেন ১৯৯৬ সালে। মিকােলার মতে, পর্নাকে ক্যারিয়ার হিসাবে গ্রহণ করার খবরে তাঁর বাবা-মা ‘আগ্রহী’ হয়েছিলেন। তিনি আরও যোগ করেছেন যে এই পেশায় আসাতে তার বাবা-মা “বিরক্ত” ছিলেন না।

Loading...