সংবাদ শিরোনাম
করোনায় বিশ্বে প্রাণহানি ৬৪ হাজার ছাড়াল, আক্রান্ত ১২ লাখের বেশি | শাহজাদপুরে করোনা মোকাবেলায় জনপ্রতিনিধিরা নিস্ক্রিয়, আসছেনা সুফল | করোনা সংক্রমণ আতঙ্কের মধ্যেও চলছে ইয়াবা ব্যবসা! | দেবীগঞ্জে চিকিৎসকদের জন্য পিপিই দিলো ওয়ালটন | যুক্তরাজ্যে ৪৩১৩ জনের প্রাণ কেড়ে নিল করোনা | মৃত্যুপুরী ইতালিতে আরও ৬৮১ জনের মৃত্যু | রাজধানীর কারওয়ান বাজারের কলাপট্টিতে আগুন | করোনা মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা রোববার | ১১ই এপ্রিল পর্যন্ত পোশাক কারখানা বন্ধ রাখার আহ্বান বিজিএমইএ সভাপতির | শরীয়তপুরে জ্বর-মাথা ব্যথা নিয়ে এক নারীর মৃত্যু, ন‌ড়িয়ায় ক‌রোনা আক্রান্ত হ‌য়ে বৃ‌দ্ধের মৃত্যু |
  • আজ ২২শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

এবার রাবিতে মাতৃভাষা দিবসের ব্যানারে বীরশ্রেষ্ঠদের ছবি

৯:৪৫ অপরাহ্ণ | শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২০ শিক্ষাঙ্গন
rajj

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে সব ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সঙ্গীত বিভাগের একটি ব্যানারে ব্যবহার করা হয়েছে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ সাত বীরশ্রেষ্ঠর ছবি। বিভাগটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে তাদের র‌্যালিতে এমন একটি ব্যানার ব্যবহার করেছে।

এর আগে একই ভুল করেছিল ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। তারা ব্যানারে ভাষা শহীদদের পরিবর্তে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ সাত বীরশ্রেষ্ঠ’র ছবি ব্যবহারের পর এবার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়েও (রাবি) এমন ঘটনা ঘটে।

ব্যানারটিতে দেখা যায়, ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদদের জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা’- শীর্ষক ব্যানারটির নিচে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো ব্যবহার করে লেখা ‘সঙ্গীত বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়’। এক পাশে রয়েছে রক্তের ছটার উপর শহীদ সাত বীরশ্রেষ্ঠর ছবি, অপর পাশে রয়েছে শহীদ মিনারের ছবি। শহীদ মিনারের ছবির ঠিক উপরে লেখা-‘২১ আমার গর্ব’।

একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে এই ভুল কেউ মেনে নিতে পারছে না। সমালোচনা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগীত বিভাগের যোগ্যতা ও দক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেছেন কেউ কেউ। বলেছেন এদের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ও মুক্তিযোদ্ধা সরকার সুজিত কুমার বলেন, ইচ্ছাকৃত কিংবা অনিচ্ছাকৃত যাই হোক, এ ধরনের ভুল অমার্জনীয়। এর মাধ্যমে ভাষাশহীদদের প্রতি অসম্মান জানানো হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক আবুল কাশেম বলছেন, আদি মানবিকের একটি শাখা সংগীত বিভাগের এ ধরনের ভুল অমার্জনীয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা বলেন, তারা নির্বুদ্ধিতার পরিচয় দিয়েছে। আশা করছি তারা ভবিষ্যতে এ ব্যাপারে সতর্ক হবে।

Loading...