সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৩শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মুজিববর্ষে মোদিকে বাংলাদেশে দেখতে চায় না মানুষ: শফী

১১:১৮ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২০ স্পট লাইট

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃভারতের দিল্লিতে মুসলমানদের ওপর নির্যাতন ও মসজিদ ভাঙচুরের ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ-এর আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

এই প্রতিক্রিয়ায় তিনি, মোদিকেও এই দাঙ্গার জন্য দায়ী করেন। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে মোদির আগমনের প্রতিবাদও করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে তিনি বলেন, মুজিববর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানে ইসলাম ও মুসলিমবিদ্বেষী ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে বাংলাদেশের জনগণ দেখতে চায় না।

মোদির প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ মদদে গুজরাট, কাশ্মীর ও দিল্লীসহ অনেক রাজ্য মুসলমানদের খুন করা হয়েছে। চরম নির্যাতন-নিপীড়ন চালানো হয়েছে। তাই যার হাতে এখনও মুসলিম গণহত্যার দাগ লেগে আছে তার উপস্থিতি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ বাংলাদেশের জনগণ মেনে নিবে না। অবিলম্বে মোদির রাষ্ট্রীয় আমন্ত্রণ বাতিল করা হোক।

বিবৃতিতে আল্লামা আহমদ শফী বলেন, মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে মুসলমানদের ওপর যেভাবে জুলুম নির্যাতন চালাচ্ছে তা পরিষ্কার রাষ্ট্রীয় নীতি ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের শামিল।

শুধু ভারতের রাজধানী দিল্লীতে সহিংসতায় ২০ জনের অধিক মুসলমান নিহত হয়েছে। মুসলমানদের পবিত্র স্থান মসজিদে আগুন দেয়া হয়েছে। খুঁজে খুঁজে মুসলিমদের বাড়িঘর ও দোকানপাটে অগ্নিসংযোগ ও হামলা করা হয়েছে।

ভারতের শত শত বছরের ইতিহাস, ঐতিহাসিক স্থাপনা ও ঐতিহ্য-অবদানে মুসলমানদের নাম মিশে আছে এমনটা দাবী করে তিনি আরও বলেন, ভারতের ঐতিহাসিক বহু স্থাপত্য মুসলমানদের তৈরি। চাইলেই এসব মুছে দেয়া যায় না। ভারতীয় মুসলমানদের অবদানের কাছে আজ পুরো বিশ্ব ঋণী।

আরও পড়ুন…..

মোদি জঙ্গিবাদী, মুজিববর্ষে তাকে চাই না: ভিপি নুর
—-

মুজিববর্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আমন্ত্রণ জানানোর সমালোচনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর।

ভারতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধী আন্দোলনে সহিংস হামলা ও হয়রানির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশে মোদির সমালোচনা করেন তিনি।

তিনি বলেন, মোদির মতো জঙ্গিবাদী নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে যদি বাংলাদেশে আসে তাহলে বাংলাদেশের মানুষকে অপমানিত করা হবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে অসম্মান করা হবে।

নুর আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু কোনো একক দলের নেতা নন, তিনি সব দলের নেতা। তার জন্মদিনে কখনো মোদি আসতে পারে না। মোদির মতো কাউকে আমরা কখনো বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর মতো মহৎ অনুষ্ঠানে দেখতে চাই না। ভারতের প্রণব মূখার্জীকে দাওয়াত করা হয়েছে। এজন্য তাকে আমরা স্যালুট জানাই একজন অসাম্প্রদায়িক নেতা হিসাবে।

নুরুল হক নুর বলেন, আমরা যে যে দলই করি না কেন, জাতির পিতা হিসাবে বঙ্গবন্ধুর প্রতি আমাদের হক রয়েছে সেক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকীতে মোদিকে আমরা চাই না।

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদ বুধবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাস বিরোধী রাজু ভাস্কর্যে পাদদেশে এ সমাবেশের আয়োজন করে।