সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ১৭ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

করোনাভাইরাসঃ ইরানে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৬

৯:৪৯ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২০ আন্তর্জাতিক
iran

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে ইরানে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৬ জনে দাঁড়িয়েছে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছে। নতুন করে এই ভাইরাসে আরো ১০৬ জন আক্রান্ত হয়েছে। এতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২৪৫ জনে দাঁড়িয়েছে।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র কিয়ানৌশ জাহানপুর এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান।

তবে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে, ইরানে করোনায় মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যা আরো কয়েক গুন বেশি। গত সপ্তাহে কোমের একজন এমপি অভিযোগ করে বলেন, সরকার করোনাভাইরাসের সংক্রমণের আসল চিত্র আড়াল করার চেষ্টা করছে। তার দাবি, কেবল কোম নগরীতেই ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

চীনের বাইরে করোনায় ইরানেই এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ইরানের ১৪ টি প্রদেশের স্কুল, বিশ্ববিদ্যালয় অন্যান্য শিক্ষা কেন্দ্রকে বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এসব অঞ্চলের মধ্যে কোম, গিলান, মারকাজি, আরদাবিল, কারমানশাহ, কাজভিন, যানযান, মাজান্দারান, গোলেস্তান, হামেদান, আল্বোরজ, সেমনান, কুর্দিস্তান, এবং তেহরান।

সেইসঙ্গে ইরানের সমস্ত হলগুলিতে শিল্প ও সিনেমা অনুষ্ঠান বাতিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এদিকে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে ইরানের তেহরান ও শিয়া মুসলিমদের পবিত্র শহর কোম ও মাশহাদসহ দেশটির অন্তত ২৩টি প্রদেশের রাজধানী শহরগুলোতে আজ জুমার নামাজ বাতিলের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

কোম ও মাশহাদে ধর্মীয়স্থানগুলোয় প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞাও জারি করেছে দেশটির সরকার।

গতকাল বৃহস্পতিবার ইরানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাইদ নামাকি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে বলেছেন, ধর্মীয় গুরুত্বপূর্ণস্থানগুলোতে দর্শনার্থীদের ‘উপাসনা ও প্রস্থান’ নীতিতে চলা উচিত। তিনি আরও বলেন, ‘ধর্মীয়স্থানগুলোর ভেতরে জড়ো হওয়ার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না।’

ইতিমধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্ত করতে ইরানকে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ২০ হাজার কিট দিয়েছে চীন। কারও শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি আছে কিনা তা নিশ্চিত হতে স্বাস্থ্য পরীক্ষার এই উপকরণ প্রয়োজন হয়। শুক্রবার উপকরণগুলো ইরানে এসে পৌঁছেছে।

গত ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে করোনাভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশির মত সমস্যা দেখা দেয়।

করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করেছে বলে বিশ্ববাসীকে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান ডা. টেডরস আধানম ঘেব্রেয়েসাস। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করেছে। এখনই থামানো উচিত। এই ভাইরাস রোধে বিশ্বকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার সময় হয়ে গেছে।

Loading...