ফরিদপুরে কালী মন্দির নির্মাণ করে দিলো ছাত্রলীগ

৯:৫৭ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, মার্চ ১৯, ২০২০ ঢাকা, দেশের খবর

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি- দুষ্কৃতকারীদের আগুনে ভস্মীভূত ঐতিহ্যবাহী ১৪ হাত কালী মন্দিরে পুনর্র্নিমাণের কাজে এগিয়ে এসেছে অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

রাজবাড়ী-ফরিদপুরের প্রান্ত সীমায় অবস্থিত মন্দিরটি ২০১৬ সালের ৮ অক্টোবর রাতের আধারে আগুন জালিয়ে দেয় মৌলবাদী অপশক্তি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, পূর্বের প্রতিমাটি বাশের চাটাই, খড়, মাটি দিয়ে তৈরি করা ছিল। ফলে তাতে দাহ্য পদার্থ মিশিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়া সহজ হওয়ায় অল্প সময়ে প্রতিমাটি ভস্মীভূত হয়। স্থানীয় গবেশ্বর কর্মকার বলেন, প্রতিমাটি পুড়ে যাওয়ার কষ্টে আমরা কাতর হয়ে পড়লেও একই সাথে আমরা যাতে ভবিষ্যতে কেউ আর এমন কাজ না করতে পারে সেজন্য সিদ্ধান্ত নেই পাথর দিয়ে নতুন করে গড়ে তোলা।

মন্দিরটির সভাপতি পরিমল দাশ বলেন, পাথর দিয়ে নতুন প্রতিমা করা আমাদের জন্য সহজ সাধ্য ছিল না। ২০১৬ সাল থেকে আমরা কাজ শুরু করি। এ বছর শেষ হল। যেদিন মন্দির পুড়িয়ে দেয়া হয়, সেদিন হাতে গোনা যে অল্প কয়েকজন এখানে এসেছিলেন তাদের মধ্যে ঐ সময়ের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শেখ স্বাধীন শাহেদও ছিল। বিগত ৫টি বছর ছাত্রলীগের ছেলেরা নানা ভাবে আমাদের পাঁশে ছিল।

জানা যায়, সম্প্রতি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সমাজসেবা সেলের মাধ্যমে ভস্মীভূত মন্দিরটি সম্পর্কে জ্ঞাত হন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। তিনি মন্দিরটির কাজ যাতে দ্রুত শেষ হয় বিষয়ে সমাজসেবা সেলকে যথাসাধ্য সাহায্য করার নির্দেশ দেন। অনুদানসহ বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে লক্ষাধিক টাকার সাহায্য করার প্রচেষ্টা করা হয়।

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাস যাতে ছড়িয়ে না পড়ে সে লক্ষে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে মন্দির কর্তৃপক্ষ কর্তৃক আয়োজিত আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানটি স্থগিত করা হয়।