বাড়ির পানে ছুটছে মানুষ, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে তীব্র যানজট

১০:৩৭ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, মার্চ ২৫, ২০২০ ঢাকা, দেশের খবর

মো. সানোয়ার হোসেন, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি- প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস আতঙ্কে সরকার প্রধান জনগণের কথা চিন্তা করে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ সরকারি-বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে।

তবে বছরে ঈদ ও পূজা ব্যতিত কোনো ছুটি না থাকায় গত ২৪ মার্চ ছুটির কারণে চাকুরিজীবী মানুষেরা করোনা আতঙ্কের কথা চিন্তা না করেই বাড়ির পানে ছুটছেন। যার দরুন মহাসড়কে যান চলাচলে বেশ চাপ পড়েছে। যানবাহনের এমন বাড়তি চাপ ও সড়ক সংস্কারের কারণেই যানজটের সৃষ্টি বলে দাবি হাইওয়ে পুলিশের।

সরজমিনে, মহাসড়কে এক লেনের কাজ চলায় বুধবার দিবাগত রাত্রি আনুমানিক ১টা থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গোড়াই এলাকা থেকে যানজটের সৃষ্টি হয়। গোড়াই থেকে শুরু হয়ে উপজেলার পাকুল্যা এলাকা পর্যন্ত প্রায় ১৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে দীর্ঘ যানজট লক্ষ করা গেছে। একদিকে যানবাহনে বাড়তি চাপ অন্যদিকে এক লেনের সংস্কার কাজ অব্যাহত থাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে শিশু ও নারীসহ ভোগান্তিতে পড়েছে হাজারো যাত্রী। এদিকে করোনার কথা চিন্তা না করেই বাস, ট্রাক, সিএনজি ও পিকআপ ভর্তি মানুষ লক্ষ করা গেছে। যাতে করে করোনা আতঙ্ক বেড়েই চলছে।

বেশ কয়েকজন যাত্রী জানায়, করোনার ভয় সবার মাঝেই আছে। কিন্তু আমাদের তো বাড়িতে যেতে হবে। কোনোকিছু না ভেবে উপায় না পেয়ে সবার সাথে মিলেমিশে বাড়িতে যাচ্ছি।

যাত্রী সাদিয়া সুলতানার সাথে কথা হলে তিনি জানান, কি আর করবো। দুধের বাচ্চা নিয়ে বাড়ি ফিরতে হচ্ছে। তাও আবার ট্রাকের সামনে বসে। খুব সমস্যা হচ্ছে কিন্তু কিছুই করার নেই।

রাজশাহীগামী ট্রাক চালক জসিম জানান, গোড়াই থেকে মির্জাপুর পর্যন্ত আসতে ৭ ঘন্টা সময় লেগেছে। যানজটের কারণে সামান্য খাবারও খেতে পারিনি।

এদিকে যানবাহনে থাকা যাত্রীদের লক্ষ করা গেছে অধিকাংশের কাছেই নেই করোনা মোকাবেলার জন্য অতিব জরুরী মাস্ক। এ কারণে করোনার ঝুকি বেড়েই চলেছে। তবে এখান থেকে করোনা ভাইরাস ছড়ালে দেশের মানুষ কতোটা ঝুকিতে পড়তে পারে সে প্রশ্ন কিন্তু থেকেই যায়।

এ বিষয়ে গোড়াই হাইওয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ মো. মনিরুজ্জামান জানান, একসাথে ছুটির কারণে যানবাহনের চাপ সৃষ্টি হয়েছে। মির্জাপুর উপজেলার শুভুল্যা এলাকায় মহাসড়কে এক লেনের সংস্কার কাজ চলায় এ যানজট তীব্র আকার ধারণ করেছে। পুলিশ সব জায়গা থেকে কাজ করে যাচ্ছে, দ্রুত সময়ের মধ্যে যানজট নিরসন করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

Loading...