• আজ ১৮ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সর্দি-জ্বরে কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তির মৃত্যু, মানিকগঞ্জে একটি গ্রাম লকডাউন

১০:৩৭ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, মার্চ ২৬, ২০২০ ঢাকা, দেশের খবর

দেওয়ান আবুল বাশার, মানিকগঞ্জ: মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার বাইলজুরি গ্রাম লকডাউন করা হয়েছে, সেই সাথে ৬ টি বাড়ির ২৬ সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দিয়েছে ঘিওর উপজেলা প্রশাসন। জ্বর-কাশি নিয়ে ঢাকায় মৃত্যুবরণ করা এক ব্যক্তিকে গ্রামে দাফন করার পর গ্রামটিকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়।

বিষয়টি ঘিওর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আইরিন আক্তার নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মৃত ব্যক্তি সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার পর কোয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায় মারা গিয়েছেন। কী রোগে মারা গেছেন সেটা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। পরিবারের সদস্যরা গোপনীয়তার মধ্যে বুধবার ভোরে লাশ গ্রামের বাড়িতে এনে দাফন করেছেন।

নিহতের ভাই আব্দুল মালেক বলেন, ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ক্যাশিয়ারের চাকরি করতেন আলমগীর হোসেন (৪৮)। সপ্তাহখানেক আগে তিনি জ্বর-কাশিতে আক্রান্ত হলে হাসপাতাল থেকে তাকে ছুটি দিয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়। এরপর থেকে তিনি ঢাকার বাসাতেই ছিলেন।

মঙ্গলবার রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান তিনি। বুধবার ভোর ৪ টার দিকে গোপনীয়তার মধ্যে মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার বাইলজুরি গ্রামে জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হয়।

খবর পেয়ে ঘিওর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আইরিন আক্তার দুপুরে করোনা সতর্কতায় বাইলজুরি গ্রাম লকডাউন ঘোষণা করেন। একই সঙ্গে মৃত ব্যক্তির বাড়িসহ আশপাশের ৬ বাড়ির সবাইকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়।

শিবালয় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানিয়া সুলতানা বলেন, গ্রামটি লকডাউন ঘোষণার পর পুরো এলাকায় ইতিমধ্যে মাইকিং করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ৬টি বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার স্টিকার লাগিয়ে দেয়া হয়েছে। গ্রামে মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ।

লকডাউনের বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আইরিন আক্তার জানান, বাইলজুরি গ্রামের এক ব্যক্তি জ্বর-কাশিতে মারা গেছেন। ওই ব্যক্তির শরীরে থাকা উপসর্গের সঙ্গে করোনাভাইরাসের মিল পাওয়া গেছে। তাই গ্রামের সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা ও করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে মৃত ব্যক্তির পরিবারসহ ছয়টি পরিবারকে হোম‌ কোয়ারেন্টিন এবং গ্রামটিকে লকডাউন করা হয়েছে।

Loading...