• আজ ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সুনামগঞ্জে মাছ ধরা নিয়ে উত্তেজনা

৯:০২ অপরাহ্ণ | শনিবার, মার্চ ২৮, ২০২০ দেশের খবর, সিলেট

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি- সরকারি নিষেধ অমান্য করে ঐতিহ্যবাহী পলো নিয়ে সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জের ফেনারবাক ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের দৌলতা নদীতে মাছ ধরতে গেছেন হাজার হাজার এলাকাবাসী।

নদীর তীরবর্তী লোকজন এ কাজে বাধা দেওয়ায় উত্তেজনা দেখা দেয় । পরে খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে সেনাবাহিনী ও পুলিশ নিয়ে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

শনিবার সকালে জামালগঞ্জের ফেনারবাক ইউনিয়নের রাজাপুরে এ ঘটনা ঘটেছে ।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, রাজাপুর গ্রামের পাশ দিয়ে দৌলতা নদী প্রবাহিত। এই মরা নদী ইজারা দেয় সরকার। তবে আশপাশের কয়েকটি গ্রামের মানুষ যুগযুগ ধরে এই সময়ে নির্ধারিত একদিন পলো দিয়ে সম্মিলিতভাবে মাছ ধরে।

শনিবার সকাল থেকে পলো ও হাতের ঠেলাজাল নিয়ে মাছ ধরতে নামেন তেরানগর, চান্দরনগর, ছেলাইয়া, মাহমুদপুর, মাখরখলা, শুকুর মাহমদপুরসহ আশপাশের কয়েকটি গ্রামের হাজারো মানুষ। তারা দুপুরের দিকে এক পর্যায়ে রাজাপুর গ্রামের পাশে আসলে গ্রামবাসী এভাবে মাছ ধরতে নিষেধ করেন। তারা অনুরোধ করেন তাদের সীমানার পানি তারা দৈনন্দিন কাজে ব্যবহার করেন। তাই ঘোলা না করার অনুরোধ জানান। এতে উত্তেজিত হয়ে মাছ ধরতে থাকা লোকজন গ্রামবাসীকে ধাওয়া করেন।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াঙ্কা পাল, থানার ওসি সাইফুল ইসলামসহ পুলিশ ও সেনাবাহিনী নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তারা বিক্ষুব্দ লোকদের বুঝিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে এভাবে সরকারি নির্দেশনা না মেনে ভিড় করে মাছ না ধরতে অনুরোধ জানান। প্রশাসন ত্বরিৎ ব্যবস্থা নেওয়ায় হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলে জানান এলাকাবাসী।

জামালগঞ্জ থানার ওসি মোঃ সাইফুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়েই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে পুলিশ ও সেনাবাহিনী ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। আমরা পরিস্থিতি শান্ত করি। কিছু লোক সরকারি নদীতে জোরপূর্বক মাছ ধরতে ছিল। এতে অন্যরা বাধা দিলে উত্তেজনা দেখা দেয়।