সংবাদ শিরোনাম
এ ধরনের ঈদ উদযাপন করবো কোনোদিন চিন্তা করিনি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী | কাউন্টার টেররিজমের সতর্কবার্তায় নিজের ভুল শুধরে ক্ষমা চাইলেন ‘বিতর্কিত’ নোবেলম্যান | ঈদের দিনে দুপুর অবধি দেশের ৫ অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টির আভাস | ৩০ মে’র পর ছুটি বাড়ানোর সম্ভাবনা নিয়ে যা বলছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় | চট্টগ্রামে আরও ৬৫ জনের দেহে কোভিড-১৯ শনাক্ত | বিশ্বব্যাপী আক্রান্তের সংখ্যা ৫৫ লাখ; মৃত্যুর সংখ্যা সাড়ে তিন লাখেরও বেশি! | করোনা যুদ্ধে প্রাণ দিলেন আরেক পুলিশ সদস্য | ঈদের আগের রাতে রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪ | বায়তুল মোকাররমে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত | বায়তুল মোকাররমে পবিত্র ঈদুল ফিতরের পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত |
  • আজ ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

করোনা ছড়ানোর অভিযোগে ভারতে মাওলানা সাদের বিরুদ্ধে মামলা

১০:১৪ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, মার্চ ৩১, ২০২০ আন্তর্জাতিক
saad

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভারতের রাজধানী দিল্লির মারকাজ নিজামুদ্দিন মসজিদে ধর্মীয় সমাবেশ থেকে ব্যাপক হারে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় তাবলিগ জামাতের নেতা মাওলানা সাদ ও অন্যান্য উদ্যোক্তাদের বিরুদ্ধে ভারতের ১৮৯৭ সালের এপিডেমিক ডিজিজ অ্যাক্ট, ১৮৯৭ ও ভারতীয় দণ্ডবিধির অন্য ধারা অনুযায়ী মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এনডিটিভি, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, কোলকাতা ২৪-সহ ভারতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, নিজামুদ্দিন মারকাজের সমাবেশে এসেছিলেন কয়েক হাজার মানুষ। সেখান থেকে শতাধিক মানুষের মধ্যে করোনা সংক্রমণের সম্ভাবনা তৈরি হয়। এখন পর্যন্ত ওই জমায়েতে ছিলেন এমন ২৪ জনের শরীরে ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এছাড়া সাতজনের মৃত্যু হয়েছে করোনায় আক্রান্ত হয়ে। ইতোমধ্যেই সিল করে দেওয়া হয়েছে সেই মসজিদ। সেখানকার আবাসিকদের বাড়িও পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় তাবলিগ জামাতের সদস্যদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

দ্য মিররের প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের তামিল নাড়ুর দুইজন ও দিল্লির একজন করোনাভাইরাসে মারা যান। তারা এই দিল্লির তাবলীগে সমবেত হয়েছিলেন।

ভারতীয় কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে বলা হয়, মারকাজ নিজামুদ্দিনে অবস্থান ব্যক্তিদের করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা গেলে তাদের সোমবার (৩০ মার্চ) দিল্লির বেশকিছু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। যার মধ্যে অন্তত ২৪ জনের আজ পরীক্ষার ফল ‘পজিটিভ’ এসেছে।

নিজামুদ্দিনের ঘিঞ্জি এলাকার ভেতর অবস্থিত মসজিদটি মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সিলগালা করেছে পুলিশ। ভিতরে তখনো সাতশর মতো লোক অবস্থান করছিলেন। তাদের সবাইকে সরকারি বাসে করে দিল্লির বিভিন্ন প্রান্তে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারগুলোতে পাঠানো হয়েছে।

দিল্লির পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সামাজিক, রাজনৈতিক বা ধর্মীয় জমায়েতের ক্ষেত্রে সরকারি আদেশ লঙ্ঘনের দায়ে মহামারি রোগ আইনের ধারা এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির অন্যান্য ধারায় মাওলানা সাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন বলেছেন, নির্দেশ অমান্য করে সমাবেশ করায় তাদের বিরুদ্ধে যাতে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয় সেই জন্য সুপারিশ করে দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নরের কাছেও চিঠি লিখেছি।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ওই ধর্মীয় সম্মেলনে অংশ নেওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ৫০ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

এখনও পর্যন্ত ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ১২০০ টপকে গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ২২৭ জন আক্রান্ত হয়েছে। দেশটি করোনায় মারা গেছেন ৩৭ জন। আক্রান্তের সংখ্যাও দেশের মধ্যে সর্বাধিক মহারাষ্ট্রে। কলকাতায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২৭।