🌏 সংবাদ শিরোনাম

সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সর্বত্র শান্তি বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর: প্রধানমন্ত্রী | চাঁদপুরে মাস্ক পরা অভিযানে প্রশাসনের জালে ছিনতাইকারী! | তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবল স্থাপন প্রকল্পের অনুমোদন | করোনা মুক্ত জেমি ডে, যাচ্ছেন কাতারে | বাবুনগরী ও মামুনুলকে দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি ৬৫ সংগঠনের | আইসিডিডিআর,বির সঙ্গে ভ্যাকসিন ট্রায়াল চুক্তি বাতিল করলো গ্লোব বায়োটেক | সিরাজদিখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দালাল দৌরাত্ব, রোগীরা সেবা বঞ্চিত | "ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে ইতিহাস-ঐতিহ্যকে নষ্ট করতে চাইলে সহ্য করা হবে না" | ছাদ থেকে লাফিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর আত্মহত্যা | নভেম্বরে ৩৫৩ নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের শিকার, ধর্ষণ ১৫৩ |

  • আজ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • f

টাঙ্গাইলে জ্বর,সর্দি,কাশি নিয়ে আ.লীগ নেতার মৃত্যু, বাড়ি লকডাউন

⏱ ১২:০৮ পূর্বাহ্ন | মঙ্গলবার, এপ্রিল ৭, ২০২০ 📂 ঢাকা
lock

মোল্লা তোফাজ্জল, টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের গোপালপুরে জ্বর, সর্দি-কাশি নিয়ে জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম খানের (৫৫) মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার (০৬ এপ্রিল) নিজ বাড়িতে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় পর তার বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। একইসঙ্গে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন কি না তা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

জাহাঙ্গীর আলম খান টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক এবং টাঙ্গাইল জেলা আদালতে আইন পেশায় নিয়োজিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আলীম আল রাজী বলেন, জাহাঙ্গীর আলম হৃদরোগ ও শ্বাসকষ্টেও ভুগছিলেন। তাকে আজ সকালে গোপালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তার স্বজনেরা মৃত অবস্থায় নিয়ে আসেন। তিনি রবিবার স্থানীয় একজন ফার্মাসিস্টের কাছ থেকে চিকিৎসা নিয়েছিলেন। ওই ফার্মাসিস্টের মাধ্যমে জানতে পেরেছি, তার শ্বাসকষ্টসহ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার নানা উপসর্গ ছিল। ওই ফার্মাসিস্ট তাকে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। এরপরই তিনি সোমবার ভোর রাতে মারা যান।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনার পর করোনাভাইরাস সন্দেহে তার শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আগামীকাল সিভিল সার্জন অফিস থেকে নমুনা ঢাকায় পাঠানো হবে। পরে বিশেষ ব্যবস্থায় সকল নিয়ম কানুন মেনে তাকে দাফন করা হয়েছে।

গোপালপুর থানার ওসি মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, এ ঘটনার পর জাহাঙ্গীর আলমের বাড়ি উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে লকডাউন করা হয়েছে। ওই বাড়ি থেকে কেউ বের হতে এবং অন্য কেউ বাড়িতে প্রবেশ করতে পারবেন না।