সংবাদ শিরোনাম
করোনায় ঢাকার সাবেক এমপি মকবুলের মৃত্যু | বরিশালে ঘূর্ণিঝড়ে বিধ্বস্তদের ঘর মেরামত করে দিলেন সেনাবাহিনী | এবার প্রবাসীদের বাড়িতে ঈদ উপহার পাঠালেন মাশরাফি | ইতালিতে ঈদুল ফিতর উদযাপন করলেন ২৫ লাখ মুসল্লি | করোনাকালে “এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট” হিসেবে দায়িত্ব পালনের গল্প | ঠাকুরগাঁওয়ে কর্মহীনদের ঈদ উপহার দিল সেনাবাহিনী | করোনা চিকিৎসায় ১৩টি হাসপাতালে রেমডেসিভির সরবরাহ শুরু | কৃষকদের ধান কেটে দেওয়ায় ছাত্রলীগকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন | জীবিকার স্বার্থে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড চালু করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী | “পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত সরকারি সহায়তা অব্যাহত থাকবে” |
  • আজ ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ইউএনওর কাছে আবেদন করার ৫ দিন পরেও মেলেনি খাদ্য সহায়তা!

১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, এপ্রিল ৮, ২০২০ রংপুর

ফয়সাল শামীম, ষ্টাফ রিপোর্টার:কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার ভিতরবন্দ ইউনিয়নের দেবেত্তর রসুলপুর গ্রামের ১৫ টি পরিবার খাদ্য সংকটে একপ্রকার অনাহারে থাকার কথা কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসককে মোবাইলে জানালে তিনি খুব দ্রুত জেলার নাগেশ্বরী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন।

এই ১৫ টি পরিবারের মানুষ গত ৪ দিন আগে নাগেশ্বরী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে দেখা করেন। তখন ইউএনও সাহেব তাদের ত্রাণ শাখায় একটি দরখাস্ত দিতে বলেন।

ত্রান শাখার দরখাস্ত দেবার ৪ দিন পেরিয়ে ৫ দিনে পড়লেও এখনও পযন্ত তাদের সাথে কেউ যোগাযোগ করেনি বা তারা কোন খাদ্যসহায়তাও এখনও পাননি বলে অভিযোগ তাদের। বর্তমানে তারা চরম কষ্টে একপ্রকার না খেয়েই দিন কাটাচ্ছে।

এ ব্যাপারে ওই গ্রামের ভুক্তভোগি,

ঈমান আলী,জালাল,আবুলকাশেম,আয়নাল,আনোয়ার,আনিছুর,আঙ্গুর,আছমত,তপন,ছইফুল,ফাকের,আউয়াল,ডালিম,আনিছুর,মিজানুর এ প্রতিনিধিকে জানান, কোন কাজ না থাকায় তাদের ঘরে এখন কোন খাবার নেই।

তারা আরও জানান, প্রথমে তারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগ করে সেখানে কিছু না পেয়ে তারা সরাসরি কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসককে বিষয়টি জানান। পরে জেলা প্রশাসক নাগেশ্বরীর ইউএনওর সাথে যোগাযোগ করতে বলেন। পরে তারা নাগেশ্বরী গিয়ে ইউএনওর সাথে দেখা করেন। দেখা করার পর ইউএনও তাদের ত্রাণ শাখায় একটি আবেদন দিতে বলেন। কিন্তু আবেদ দেয়ার ৫ দিন পরেও কোন খাদ্য সহায়তা পাননি বলে তারা অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিমের সাথে মুঠেফোনে কথা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি আমি জানি। তারা আমাকে ফোন করলে আমি তাদের খুব দ্রুত নাগেশ্বরী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে যোগাযোগ করতে বলি। এবং নাগেশ্বরী উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি দেখতে বলি কিন্তু কেন তারা এখনও খাদ্য সহায়তা পেলেন না এটা বুঝতে পারছি না।