জামালপুরে এক গার্মেন্টকর্মীসহ আরো ৪ জন করোনায় আক্রান্ত

১২:১১ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, মে ১, ২০২০ দেশের খবর, ময়মনসিংহ

জামালপুর প্রতিনিধি- জামালপুরে নতুন করে আরো চারজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে সরিষাবাড়ীতে দুই ব্যক্তি, সদর উপজেলায় এক নারী ও ইসলামপুরে এক নারী গার্মেন্টকর্মী রয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্ত হলেন ৬৫ জন।

সূত্র জানায়, ময়মনসিংহের করোনা পিসিআর ল্যাব থেকে বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) রাতে চারজনের করোনা পজেটিভ আসে। বাকি ৭৯ জনের নমুনায় করোনা নেগেটিভ আসে। নতুন করে আক্রান্ত চারজন জেলার সরিষাবাড়ী পৌরসভার ধানাটা গ্রামের দুই ব্যক্তি, এদের মধ্যে একজন সরিষাবাড়ী উপজেলা হাসপাতাল সংলগ্ন মাতৃছায়া ডায়াগনোস্টিক সেন্টারের মালিক এবং আরেকজন বিসমিল্লাহ ঔষধ বিতানের কর্মী।

এছাড়া জামালপুর শহরের খামাবাড়ি এলাকায় একজন গৃহিনী (২৮) এবং ইসলামপুর উপজেলার উত্তর দরিয়াবাদ ফকির পাড়া গ্রামের ঢাকাফেরত এক নারী গার্মেন্টকর্মীর (৩০) করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার শনাক্ত হওয়া নতুন চারজনের মধ্যে ইসলামপুরের গার্মেন্টকর্মী ব্যতীত বাকি তিনজনকে উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন। কিন্তু ইসলামপুর উপজেলা প্রশাসন এবং স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে করোনা শনাক্ত হওয়া ওই গার্মেন্টকর্মীর বাড়িতে গিয়ে তাকে এবং তার স্বামী ও পরিবারের অন্যান্য নিকটাত্মীয়দের কাউকে খুঁজে পাননি।

সূত্র জানায়, করোনার উপসর্গ থাকায় গত মঙ্গলবার ইসলামপুর উপজেলা হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীরা ওই গার্মেন্টস কর্মীর বাড়িতে গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করেন। নমুনা সংগ্রহের দিন ওই নারী যে মোবাইল ফোন নম্বর দিয়েছিলেন সেই ফোন নম্বরটি সচল থাকলেও যারা ফোন ধরছেন তারাও ওই নারী সম্পর্কে কিছুই বলতে পারছেন না।

স্থানীয়দের অনেকেই বলছেন হয়তো ওই নারী ঢাকায় চলে গেছেন। তবে আদৌ তিনি ঢাকায় নাকি নারায়ণগঞ্জের গার্মেন্টে কাজ করেন তা নিয়েও ধোয়াশার সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে করোনায় আক্রান্ত অবস্থায় ওই নারী এলাকা ছেড়ে উধাও হওয়ায় স্থানীয় প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা এ নিয়ে বেশ বিপাকে পড়েছেন।

জামালপুরের ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন চিকিৎসক মো. মাহফুজুর রহমান সোহান জানান, নতুন করে করোনা শনাক্ত হওয়া সদরের একজন গৃহিনীকে তার নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে এবং সরিষাবাড়ীর দুই ব্যক্তিকে জামালপুরে প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

তবে ইসলামপুরে শনাক্ত হওয়া ওই গার্মেন্টকর্মী ঢাকায় চলে গেছে। তাকে খুঁজে বের করে আইসোলেশনে রাখার প্রচেষ্টা চলছে বলেও জানান সিভিল সার্জন।