তাহিরপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২৫

১১:৩২ অপরাহ্ণ | শনিবার, মে ১৬, ২০২০ সিলেট
sunam

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ২৫ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত কামাল মিয়া ও মাজেদা বেগম নামে তিন জনকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। দুজনকে তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যান্যদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৫ জনকে আটক করেছে। আটকৃতরা হলেন, আলী হোসেন কমান্ডার (৫৫), জামাল মিয়া (৫৫), কবির হোসেন (২৬), ফরিদ মিয়া (৩৮)। শনিবার দুপুরে তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ধরুন্দ গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে।

জানা যায়,উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ধরুন্দ গ্রামের পরশ আলীর ছেলে মলাই মিয়ার সাথে কাঞ্চনপুর গ্রামের আলী হোসেন কমান্ডারের মধ্যে বিরোধ চলছে। এরই জের ধরে শনিবার সকালে মলাই মিয়ার ছোট ভাই সালমান বাদাঘাট বাজারে আসার সময় ধরুন্দ গ্রামের সামনের রাস্তায় আলী হোসেন কমান্ডারের ছেলে কামাল হোসেনেকে সড়কে পেয়ে ধারালো অস্ত্র নিয়ে পথরোধ করে তাকে মারপিট করে।

এই খরব জানাজানি হলে আলী হোসেন কমান্ডার তার আত্মীয় স্বজনদের এগিয়ে আসলে মলাই মিয়ার আত্মীয়-স্বজনরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। এসময় উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে ঘন্টাব্যপী সংঘর্ষ চলে। সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে পুলিশের ঘটনাস্থলে এসে লাটিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

সংঘর্ষে দুপক্ষের জামাল মিয়া (৫৫), জহির মিয়া (৩৫), কবির হোসেন (২৬), মোশারফ মিয়া (৩৫), জসিম উদ্দিন (৩৫), ফরিদ মিয়া (৩৮), নাছির মিয়া (৩৫), আবুবক্কর (৪২), আলাল মিয়া (২৮), দুলাল মিয়া (৪০), আলী হোসেন কমান্ডার (৫৫) তার ছেলে কামাল মিয়া (৩৫), মাজেদা বেগম (১৬), অহিনুর (২৫), আক্কাছ আলী (৩৫), আইনুল মিয়া (৩২) সহ ২৫জন আহত হয়।

তাহিরপুর থানার ওসি মোহাম্মদ আতিকুর রহমান সংঘর্ষের ঘটনাটি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।