মাস্ক না পরলে ১ লাখ টাকা জরিমানা অথবা ৬ মাসের জেল

১০:৫৯ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, জুন ১, ২০২০ জাতীয়
mask

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যে মাস্ক ছাড়া বাইরে বের হওয়া বেআইনি উল্লেখ করে কেউ মাস্ক না পরলে জেল জরিমানার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ আইনের আওতায় মাস্ক না পরে কেউ বের হলে ৬ মাস জেল অথবা এক লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।

শনিবার রাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এ সংক্রান্ত একটি সাকুর্লার জারি করা হয়। সেখানে স্বাস্থ্য বিধি না মানলে শাস্তির কথা উল্লেখ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাইরে চলাচলের ক্ষেত্রে সবসময় মাস্ক পরিধানসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। নির্দেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন-২০১৮ এর ধারা ২৪ (১), (২) ও ধারা ২৫(১) (ক,খ) এবং ধারা ২৫ (২) অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। জেলা প্রশাসন/যথাযথ কর্তৃপক্ষ সতর্কভাবে এটি বাস্তবায়ন করবেন।

আর সংক্রামক আইনটির ধারা ২৪ (১) এ বলা হয়েছে, যদি কোন ব্যক্তি সংক্রামক জীবাণুর বিস্তার ঘটান বা বিস্তার ঘটাতে সহায়তা করেন বা জ্ঞাত থাকা সত্ত্বেও অপর কোন ব্যক্তি সংক্রমিত ব্যক্তি বা স্থাপনার সংস্পর্শে আসার সময় সংক্রমণের ঝুঁকির বিষয়টি তার নিকট গোপন করেন তাহলে উক্ত ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হবে একটি অপরাধ।

আর ধারা ২৪ (২)তে বলা হয়েছে, যদি কোন ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এর অধীন কোন অপরাধ সংঘটন করেন তাহলে তিনি অনুর্ধ ৬ (ছয়) মাস কারাদণ্ড বা অনুর্ধ ১ (এক) লক্ষ টাকা অর্থদন্ডে বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।

এভাবে আইনটির ধারা ২৫(১) এ বলা হয়েছে যদি কোন ব্যক্তি মহাপরিচালক, সিভিল সার্জন বা ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে তার ওপর অর্পিত কোন দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে বাধা প্রদান বা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন এবং সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূলের উদ্দেশ্যে মহাপরিচালক, সিভিল সার্জন বা ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কোন নির্দেশ পালনে অসম্মতি জ্ঞাপন করেন তাহলে উক্ত ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ। এই ধারার অধীন যদি কোন ব্যক্তি অপরাধ সংঘটন করেন তাহলে তিনি অনুর্ধ ৩ (তিন) মাস কারাদণ্ড বা অনুর্ধ ৫০ (পঞ্চাশ) হাজার টাকা অর্থদন্ডে বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এর বাইরেও সরকারের পক্ষ থেকে যেসব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বলা হয়েছে তা অমান্য করলেও উপরোক্ত দুই শাস্তির আওতায় পড়তে হবে দেশের নাগরিকদের। এছাড়া অফিস, গণপরিবহন চালু হলেও রাত ৮টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত জনসাধারণের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে।

তবে জরুরী সেবা এই নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।