করোনা চিকিৎসায় গেম চেঞ্জার ওষুধের অনুমোদন দিলো রাশিয়া

৪:০৯ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, জুন ২, ২০২০ আন্তর্জাতিক
russ

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ করোনা চিকিৎসায় শুরু থেকেই নানা ওষুধ ছিল আলোচনায়। বিশ্বের বহু দেশ পরীক্ষামূলকভাবে বিভিন্ন ওষুধ ব্যবহার করছে এ রোগে আক্রান্ত রোগীদের সারিয়ে তুলতে। সম্প্রতি অ্যাভিফির নামক একটি ওষুধের অনুমোদন দিয়েছে রাশিয়া।

দেশটির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, করোনা চিকিৎসায় গেম চেঞ্জারের ভূমিকা পালন করতে পারে এই ওষুধ।

যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল জানাচ্ছে, রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কোভিড-১৯ রোগের চিকিৎসায় অ্যাভিফ্যাভির ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে। প্রথম ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্র্যায়ালে প্রত্যাশিত ফলাফল পাওয়ার পরই এটি ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হয়।

অ্যাভিফ্যাভির হচ্ছে ফ্যাভিপিরাভিরের পরিবর্তিত সংস্করণ। ফ্যাভিপিরাভির জাপানে ফ্লুর চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত হয়। আর এটিকে সংস্কারের মাধ্যমে অ্যাভিফ্যাভির তৈরি করেছে রাশিয়া। যা তৈরি করা হয়েছে বিশেষ করে কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য।

দাবি করা হচ্ছে, ‘এটি কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে বিশ্বের সবচেয়ে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ প্রতিষেধক।’

রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড (আরডিআইএফ) ওষুধটি রাশিয়ান ফার্মাসিটিক্যাল ফার্ম চেমরারের সঙ্গে যৌথভাবে তৈরি করেছে।

আরডিআইএফ প্রধান কিরিল দিমিত্রিয়েভ বলেন, ওষুধটির ক্লিনিক্যাল টেস্টে খুবই ভালো ফল পাওয়া গেছে। ওষুধটি ব্যবহারের চারদিন পর ৬৫ শতাংশ রোগীর শরীরেই ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের চূড়ান্ত ধাপে বর্তমানে ৩৩০ জন রোগীর ওপর প্রয়োগ করা হচ্ছে ওষুধটি।

কিরিল দিমিত্রিয়েভ বলেন, আমরা বিশ্বাস করি, এটা গেম চেঞ্জার হতে যাচ্ছে। এটা স্বাস্থ্য ব্যবস্থার ওপর চাপ কমাবে। এ ওষুধ দিয়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রাশিয়ার রোগীদের চিকিৎসা শুরু হবে ১১ জুন থেকে।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের হিসেবে, রাশিয়ায় করোনার প্রবল সংক্রমণ হচ্ছে। এখন পর্যন্ত ৪ লাখ ১৪ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১টা পর্যন্ত পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৪ হাজার ৮৫৫। মস্কোতেই সর্বাধিক সংক্রমণ। করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর নিরিখে রাশিয়া প্রথম ১০টি দেশের একটি।