সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমান সপরিবারে করোনায় আক্রান্ত

৯:৩২ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, জুন ৫, ২০২০ স্পট লাইট

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক: এবার চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনের সংসদ সদস্য মো. মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী সপরিবারে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন তাঁর স্ত্রী, তিন মেয়ে, এক নাতনি ও এক মেয়ের জামাই। আক্রান্তের তালিকায় আছেন সাংসদের এপিএস এবং তিন গৃহকর্মীও।

শুক্রবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন মোস্তাফিজুর রহমানের এপিএস একেএম মোস্তাফিজুর রহমান রাসেল। তারা করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফলাফল মঙ্গলবার জানতে পারলেও বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রকাশ পায় শুক্রবার।

এপিএস রাসেল বলেন, ‘গত ১ জুন সংসদ সদস্য মো. মোস্তাফিজুর রহমানের শহরের বাসা থেকে পরিবারের মোট ১৬ জনের নমুনা নেওয়া হয়। ২ জুন ফৌজদারহাট বিআইটিআইডির রিপোর্টে সংসদ সদস্যসহ মোট ১১ জনের করোনাভাইরাস পজিটিভ আসে।’

তিনি বলেন, ‘২৫ মার্চ সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর থেকে গাড়িচালকদেরও ছুটি দেওয়া হয়। বাসায় মানুষের যাওয়া-আসাও সীমিত করা হয়েছে। স্যার তেমন কোনো মিটিং-সেমিনারেও যোগ দেননি। তিনি নিজে এবং পরিবারের কোনো সদস্য বাসা থেকে তেমন বেরও হননি। শুধু ১৪ মে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠানে যোগ দেন। এর আগে এপ্রিলের শেষ দিকে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের আহ্বানে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসের একটি সভায় যোগ দিয়েছিলেন।’

রাসেল আরো বলেন, ‘এছাড়া নিজের এলাকায় ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে অংশ নিয়েছিলেন, তবে তা ১৪ এপ্রিলের আগ পর্যন্ত। সব মিলিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং সব ধরনের সুরক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করেই ছিলেন তিনি। এর পরও করোনায় আক্রান্তের হিসাব মেলাতে যাচ্ছে।’

রাসেল আরও বলেন, ‘ঈদের আগে নিজ এলাকা বাঁশখালীতে গেলেও বাড়িতে লোকজনের ভিড় হওয়ার শঙ্কায় পুনরায় শহরে ফিরে আসেন মো. মোস্তাফিজুর রহমান।

ঈদ করেছেন শহরেই। তবে ঈদের সময় বাসায় বেশ কিছু সংখ্যক অতিথি এসেছিলেন। যদিও অতিথিদের সঙ্গে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই কথা বলেছিলেন তিনি।’

পরিবারের সবাই শহরের বাসায় আইসোলেশনে আছেন জানিয়ে রাসেল বলেন, ‘আল্লাহর রহমতে স্যার ভালো আছেন। পরিবারের সবাই ভালো আছে। আমরাও ভালো আছি। সিভিল সার্জন মহোদয় খোঁজ-খবর রাখছেন।