• আজ ১লা শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় মীনা কার্টুনে পরিণত হয়েছে’

৯:৩৭ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, জুন ৩০, ২০২০ জাতীয়
sas

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ করোনা মোকাবিলায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সমন্বয়হীনতা ও দুর্নীতি নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সংসদ সদস্যরা। মঙ্গলবার (৩০ জুন) জাতীয় পার্টির সদস্য পীর ফজলুর রহমান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে মীনা কার্টুনের সঙ্গে তুলনা করেছেন।

জাতীয় সংসদে ২০২০-২১ অর্থ বছরের বাজেটে স্বাস্থ্যখাতে মঞ্জুরি প্রস্তাবের উপর আনা ছাঁটাই প্রস্তাবের বক্তব্যে তিনি বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় মীনা কার্টুনে পরিণত হয়েছে। আর মন্ত্রণালয় চলছে টিয়া পাখির দ্বারা। মানুষ আমাকে বলে সংসদে বলবেন প্রধানমন্ত্রী যেন বর্তমান স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে অন্য জায়গায় সরিয়ে দিয়ে সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীকে স্বান্থ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেন।

জাতীয় পার্টির সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে সব করতে হয়। কীভাবে হাঁচি দিতে হবে তাও প্রধানমন্ত্রীকে বলে দিতে হয়। প্রধানমন্ত্রীকে যদি সব বলে দিতে হয় তাবে মন্ত্রণালয়, অধিদপ্তরের কী দরকার। অধিদপ্তর মন্ত্রণালয়ের মধ্যে কোনো সমন্বয় নেই। করোনায় কী করতে হবে তাও যদি প্রধানমন্ত্রীকে বলে দিতে হয় তাহলে মন্ত্রণালয়, অধিদপ্তর রেখে খরচ বাড়ানোর দরকার কী।

রওশনারা মান্নান বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণায়ে দুর্নীতি আছে। করোনার সময় কী কাজ করা হয়েছে তা নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর একটা বিবৃতি দেওয়া উচিত, মানুষকে জানানো উচিত। উনি কী করেছেন।

মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, আমরা দেখলাম স্বাস্থ্য সচিব একেক সময় একেক কথা বলছেন। তখন স্বাস্থ্য সচিব বললেন, গরমে করোনা হবে না। আবার এখন বললেন দুই-তিন বছর করোনা থাকবে। একটি নির্দেশনা দেন এমপি-মন্ত্রীকে বাধ্যতামূলক সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা করাবেন। বেসরকারি হাসপাতালে বা বিদেশে যাবে না, অতি জরুরি না হলে। এ নির্দেশনা দেন তাহলে সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসার অবস্থা ভালো হবে।

এর আগে বিএনপির সংসদ সদস্য মো. হারুন অর রশীদ সংসদে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি তুলেছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য খাতে চরম অব্যবস্থা-অনিয়ম চলছে। সরকারের লোকজন ও বিএমএ বলছে, করোনায় মৃত্যুর দায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের। এই দুঃসময়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী কী করেছেন? ১০ দিন ধরে ফোন করে ও বার্তা দিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালকের সাড়া মিলছে না। ব্যর্থতার জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে সরিয়ে দেন। কমিটমেন্ট আছে, এমন ব্যক্তিদের দায়িত্ব দেন।’