সংবাদ শিরোনাম
২২ ঘণ্টা ঘিরে রাখার পর জানা গেল বস্তুটি বোমা নয়, টাইলস কাটার যন্ত্র | নন্দীগ্রামে দেশীয় অস্ত্রসহ ডাকাত দলের ৪ সদস্য গ্রেফতার | স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রী কিনতে বাংলাদেশকে ৩০ লাখ ডলার দেবে এডিবি | শ্রীমঙ্গলে ৫ শতাধিক পথচারীকে মাস্ক দিলেন আব্দুস শহীদ এমপি | কোটালীপাড়ায় সুদখোরের চাপে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যার চেষ্টা | ‘হোম অফিস’ বাতিল, স্বাস্থ্যবিধি মেনে অফিসে আসতে হবে সবাইকে | হবিগঞ্জে মাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা, তরুণ আটক | মেজর সিনহা ‌‘হত্যা’: ওসি প্রদীপসহ ৯ পুলিশকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ | ওএসডি হলেন মাহবুব কবির মিলন | বাড়িতে কেউ না থাকায় মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা, লম্পট বাবার বিরুদ্ধে মামলা |
  • আজ ২২শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

অশ্লীল ভিডিও দেখিয়ে বলাৎকারের চেষ্টা, রাজি না হওয়ায় গলাটিপে হত্যা!

১১:৫২ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুলাই ২, ২০২০ রাজশাহী
atok

উজ্জ্বল অধিকারী, বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি: নৌকায় বেড়াতে গিয়ে ধৈঞ্চাক্ষেতে নিয়ে অশ্লীল ভিডিও দেখিয়ে ১০ বছরের কিশোরকে বলাৎকারের চেষ্টা করে এক যুবক, রাজি না হওয়ায় ধৈঞ্চা ক্ষেতে গলা টিপে হত্যা করে পানিতে ফেলে দিয়ে যায় এক ঘাতক যুবক।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (কামারখন্দ সার্কেল) শাহীনুর কবিরের কাছে এরকমই জবান বন্দী দিয়েছে সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে ইয়ামিন নামে দশ বছরের এক শিশুকে গলাটিপে হত্যা করী ঘাতক সুমন।

ঘাতক সুমনকে ইন্টানেট টেকনিক্যালের মাধ্যমে আটকের পর তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক ৪দিন পর মঙ্গলবার (৩০ জুন) বিকেলে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (কামারখন্দ সার্কেল) শাহীনুর কবিরের নেতৃত্বে বেলকুচি থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) নুরে আলম, উপ-পরিদর্শক মেহেদী হাসানসহ সংগ্রীহ ফোর্স নিয়ে চর রান্ধুনী বাড়ীর একটি ধৈঞ্চাক্ষেত থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করেছে।

শিশু ইয়ামিন উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের চর রান্ধুনীবাড়ী গ্রামের মো. লালচাঁদের ছেলে। ঘাতক সুমন একই গ্রামের আবুল কালামের ছেলে।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (কামারখন্দ সার্কেল) শাহীনুর কবির এই প্রতিবেদককে জানান, গত ২৭ তারিখ শিশু ইয়ামিন নিখোঁজের ঘটনায় তার পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় জিডি দায়ের করা হয়। জিডির তদন্তের এক পর্যায়ে ইন্টারনেট টেকনোলোজির মাধ্যমে সন্দেহজনকভাবে সুমনকে আটক করা হয়। তাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে শিশু ইয়ামিনকে হত্যার পর পানির মধ্যে ধৈঞ্চাক্ষেতে ফেলে রাখার কথা স্বীকার করে। তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক সন্ধ্যার আগে শিশু ইয়ামিনের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করা হয়।

ঘাতকের বরাত দিয়ে তিনি আরো জানান, ঘটনার দিন দুপুর দুই টার দিকে ঘাতক সুমন শিশু ইয়ামিনকে নৌকায় ঘুরতে বের হয়। এসময় একটি ধৈঞ্চাক্ষেতে গিয়ে তাকে কিছু অশ্লীল ভিডিও দেখায়। এরপর তাকে ঐক্ষেতে বলাৎকারের চেষ্টা করে। কিন্তু শিশুটি রাজি না হওয়ায় তাকে গলাটিপে হত্যা করে লাশ ক্ষেতেই পানির মধ্যে রেখে দেয়।

Skip to toolbar