সংবাদ শিরোনাম
বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রচলিত আজব কিছু কুসংস্কার | টিকটক সেলিব্রেটি ‘অফু বাই’ গ্রেফতার | শচীনের ব্যাটেই ৩৭ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন আফ্রিদি! | বাউফলে পানিতে ডুবে একই পরিবারের তিন বোনের মর্মান্তিক মৃত্যু | হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িতে হামলা: যুবলীগ নেতাসহ জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি | ‘শেখ হাসিনা প্রমাণ করেছেন সঠিক নেতৃত্বে দুর্যোগ মোকাবেলা করা সম্ভব’- তথ্যমন্ত্রী | সাবেক সেনা কর্মকর্তার মৃত্যুতে মির্জা ফখরুলের বিবৃতি | কুড়িগ্রামে করোনার উপসর্গ নিয়ে পুলিশ সদস্যের মৃত্যু | নেপালে ভূমিধসে আট নির্মাণশ্রমিকসহ ১০ জনের মৃত্যু | কোরবানির মাংস সংগ্রহ করতে গিয়ে নিখোঁজ, পানি থেকে ভাসমান মরদেহ উদ্ধার |
  • আজ ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় বেড়েই চলছে নদ-নদীর পানি

১১:২৫ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, জুলাই ৩, ২০২০ দেশের খবর, সিলেট

মঈনুল হাসান রতন, হবিগঞ্জ প্রতনিধি- হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় নদ-নদীর পানি বেড়েই চলছে। উজান থেকে নেমে আসা পানি ও পাহাড়ি ঢলে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। এরইমধ্যে বেশ কিছু বাঁধ ও সড়কে পানি উঠে গেছে। ফলে অকাল বন্যার আশঙ্কা করছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড বলছে, সিলেট ও সুনামগঞ্জ থেকে নেমে আসা পানির কারণে পানি কিছুটা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে ওই এলাকাটি যেহেতু হাওর এলাকা তাই বড় ধরণের কোনো শঙ্কার আশঙ্কা নেই। বর্তমান পরিস্থিতিতে পানি কিছু কিছু অংশে বাড়লেও কয়েকদিনের মধ্যেই তা স্বাভাবিক হয়ে যাবে।

আজমিরীগঞ্জ উপজেলার ওপর দিয়ে বয়ে গেছে কুশিয়ারা, কালনী, ভেড়ামোহনা ও বশিরা নদী। গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টি, পাহাড়ি ঢল ও উজান থেকে নেমে আসা পানির কারণে ওই নদী দুইটিতে ক্রমাগত পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে আশপাশের এলাকার সড়ক, কালভার্ট ও ব্রিজ দিয়ে হাওরের জমিতে পানি প্রবেশ করছে।

এছাড়াও কাকাইলছ ও চৌধুরী বাজার এলাকায় নির্মিত প্রায় এক কিলোমিটার বাজার রক্ষা বাঁধটি পানির নিচে তলিয়ে গেছে। বদলপুর ও পাহারপুর বাঁধের অবস্থাও প্রায় একই।

অপরদিকে, আজমিরীগঞ্জ থেকে বদলপুর যাওয়ার একমাত্র সড়কটিও তলিয়ে যাওয়ার উপক্রম। ফলে সামান্য পানি বৃদ্ধি পেলেই বন্ধ হয়ে যেতে পারে ওই সড়ক দিয়ে চলাচলকারী যানবাহন। আর এতে করে দুর্ভোগে পড়তে পারে ওই এলাকার হাজারো জনগণ।

স্থানীয়রা বলছেন, গত কয়েকদিন যাবত কুশিয়ারা, কালনী, ভেড়ামোহনা ও বশিরা নদীতে ক্রামাগত পানি বেড়েই চলেছে।

আর কয়েকদিন এভাবে পানি বৃদ্ধি পেলে সড়ক ডুবে হাট বাজার ও বাড়িতে পানি প্রবেশ করতে পারে। আর এতে বন্যার আশঙ্কা করছেন তারা। তাই পানি উন্নয়ন বোর্ডের বাঁধগুলো যাতে মেরামত ও সঠিকভাবে পর্যবেক্ষণ করা হয় সে জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন স্থানীয়রা।

আজিজ আহমেদ নামে এক স্থানীয় বাসিন্দা জানান, গত কয়েকদিন ধরে পানি যেভাবে বাড়ছে তাতে করে আতঙ্কিত না হয়ে পারি না। এরই মধ্যে নিচু এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে।

ব্যবসায়ী আজম উদ্দিন জানান, পানি যেভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে বন্যা দেখা দিতে পারে। আজমিরীগঞ্জ বাজার থেকে সড়ক পথে মালামাল নিয়ে আসি। পানি বৃদ্ধির ফলে সড়কে অনেক জায়গায় পানি উঠে গেছে। এভাবে পানি বাড়লে অনেক ক্ষতি হতে পারে। সে ক্ষেত্রে বিকল্প ব্যবস্থায় মালামাল নিতে হবে।

হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অতিরিক্ত নির্বাহী প্রকৌশলী মোহন লাল সরকার জানান, গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টি ও সুনামগঞ্জ শাল্লা এলাকা দিয়ে পানি নেমে আসার ফলে নদীতে পানি কিছুটা বাড়ছে। তবে বড় ধরণের কোনো বন্যার আশঙ্কা নেই।

এছাড়াও আজমিরীগঞ্জ এলাকাটি যেহেতু হাওর এলাকা তাই পানি বাড়লেও আবার দ্রুত ছড়িয়ে গিয়ে কমে যায়। তাই এ নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।এছাড়াও সার্বিক পরিস্থিতি সবসময় হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড পর্যবেক্ষণ করছেন বলেও জানান তিনি।

Skip to toolbar