সংবাদ শিরোনাম
বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রচলিত আজব কিছু কুসংস্কার | টিকটক সেলিব্রেটি ‘অফু বাই’ গ্রেফতার | শচীনের ব্যাটেই ৩৭ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন আফ্রিদি! | বাউফলে পানিতে ডুবে একই পরিবারের তিন বোনের মর্মান্তিক মৃত্যু | হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িতে হামলা: যুবলীগ নেতাসহ জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি | ‘শেখ হাসিনা প্রমাণ করেছেন সঠিক নেতৃত্বে দুর্যোগ মোকাবেলা করা সম্ভব’- তথ্যমন্ত্রী | সাবেক সেনা কর্মকর্তার মৃত্যুতে মির্জা ফখরুলের বিবৃতি | কুড়িগ্রামে করোনার উপসর্গ নিয়ে পুলিশ সদস্যের মৃত্যু | নেপালে ভূমিধসে আট নির্মাণশ্রমিকসহ ১০ জনের মৃত্যু | কোরবানির মাংস সংগ্রহ করতে গিয়ে নিখোঁজ, পানি থেকে ভাসমান মরদেহ উদ্ধার |
  • আজ ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বগুড়ায় করোনায় স্কুল শিক্ষক ও নারীর মৃত্যু

৫:১৪ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, জুলাই ৩, ২০২০ রংপুর

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গোলাম রব্বানী (৫৭) নামে এক স্কুল শিক্ষক ও আইনুন নাহার (৫৪) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। ৩ জুলাই শুক্রবার বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে একজন ও বেসরকারি টিএমএএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আরো একজনের মৃত্যু হয়।

বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) ডা. খায়রুল বাশার মোমিন সময়ের কন্ঠস্বরকে জানান, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া আইনুন নাহার নামে ওই নারী গত ১ জুলাই মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে ভর্তি হন। তিনি সদর উপজেলার ঠনঠনিয়া দক্ষিণপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

তিনি শ্বাসকষ্টের পাশাপাশি ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। তার শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে ২ জুলাই বৃহস্পতিবার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য স্থানান্তর করা হয়। কিন্তু তার পরিবারের সদস্যরা সিদ্ধান্ত নিতে না পারায় রাতে মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। পরবর্তীতে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তিনি মারা যান।

এদিকে বগুড়ার নন্দীগ্রামে করোনায় আক্রান্ত হয়ে আলহাজ্ব গোলাম রব্বানী (৫৮) নামে এক প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি উপজেলার ভাটরা গ্রামের বাসিন্দা। তিনি বুড়ইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। শুক্রবার ভোরে বগুড়ায় বেসরকারি টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোছা. শারমিন আখতার।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, প্রধান শিক্ষক গোলাম রব্বানীর হার্টে সমস্যা ও ডায়াবেটিস ছিল। ২০১৩ সালে তার হার্টে রিং পরানো হয়। জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়ায় গত ২৪ জুন দুপুরে টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গোলাম রব্বানিকে ভর্তি করা হয়। পরদিন নমুনা পরীক্ষায় তিনি পজেটিভ হন। তারপর থেকে তিনি ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিলেন।

শুক্রবার ভোরে তার মৃত্যু হয়। তিনি স্ত্রী, এক কন্যা সন্তানসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। গোলাম রব্বানীর লাশ দাফনের জন্য জীবাণুমুক্ত করে গ্রামের বাড়িতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান ইউএনও মোছা. শারমিন আখতার।

Skip to toolbar