বগুড়ায় কমেছে যমুনা-বাঙ্গালী নদীর পানি

৬:১৩ অপরাহ্ণ | শনিবার, জুলাই ৪, ২০২০ দেশের খবর, রাজশাহী

সাখাওয়াত হোসেন জুম্মা, বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ায় নদ-নদীর পানি কমতে শুরু করেছে। দেশের অন্যতম প্রধান নদী যমুনা নদীর পানি ৬৭ সেন্টিমিটার থেকে পর্যায়ক্রমে ১৩ সেন্টিমিটার কমলেও বিপদসীমার ৫৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়েই প্রবাহিত হচ্ছে।

গত বেশ কয়েকদিনের প্রবল বৃষ্টিপাত ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে জেলার সারিয়াকান্দি পয়েন্টে যমুনা নদীতে পানি বেড়েছিল। তবে গত ২৪ ঘণ্টার হিসেব অনুযায়ী এ নদীর পানি কিছুটা কমেছে। অন্যদিকে যমুনার অন্যতম শাখানদী বাঙ্গালী নদীরও পানি কমতে শুরু করেছে।

শনিবার (৪ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিষয়টি সময়ের কন্ঠস্বরকে নিশ্চিত করেন বগুড়া জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহবুবুর রহমান।

এদিকে যমুনা নদীর পানি বাড়ার ফলে সারিয়াকান্দি উপজেলার চরাঞ্চলের চালুয়াবাড়ী, কর্নিবাড়ী, কুতুবপুর, চন্দনবাইশা, কাজলা, কামালপুর, রৌহাদহ ও সারিয়াকান্দি সদর ইউনিয়ন এবং ধুনট উপজেলার নিম্নাঞ্চলে ধান, পাট, ভুট্টা, মরিচসহ ফসলি জমি পানিতে তলিয়ে গেছে। বন্যার সাথে এ অঞ্চলের মানুষের যুদ্ধ প্রতিনিয়ত তবুও নদীর পানি বাড়ায় নদী তীরবর্তী এলাকার মানুষের মাঝে নতুন করে উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে। বাড়ীঘর পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় অসংখ্য মানুষ বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে ।

বগুড়া জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহবুবুর রহমান জানান, যমুনা নদীতে বিপদসীমা নির্ধারণ করা হয় ১৬ দশমিক ৭০ মিটারে। শনিবার দুপুর ১২টার হিসেব অনুযায়ী নদীর পানি ১৭ দশমিক ২৪ মিটারে প্রবাহিত হচ্ছে। অর্থাৎ বিপদসীমার ৫৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, বাঙ্গালী নদীতে বিপদসীমা নির্ধারণ করা হয় ১৫ দশমিক ৮৫ মিটারে। বর্তমানে এ নদীতে পানি ১৫ দশমিক ১৬ মিটারে প্রবাহিত হচ্ছে। এ নদীর পানি গত দু’দিন বাড়লেও বর্তমানে স্থিতিশীল অবস্থায় রয়েছে।

Skip to toolbar