সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফরিদপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে তিন জনের মৃত্যু

১১:১২ অপরাহ্ণ | সোমবার, জুলাই ৬, ২০২০ ঢাকা
upo

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: করোনা উপসর্গ নিয়ে ফরিদপুরের শহরের মুদি দোকানি, সদর উপজেলার শিবরামপুরের ব্যবসায়ী ও ভাঙ্গা পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলীর মৃত্যু হয়েছে।

ভাঙ্গা পৌরসভার হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা কাওছার মিয়া জানায়, গত কয়েকদিন ধরেই জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন নির্বাহী প্রকৌশলী আনোয়ার হোসেন(৫৭)। ভাঙ্গা হাসপাতালের ডাক্তার তাঁকে করোনা উপর্সগ ধারণা করে দ্রুত চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দেন। আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী, ১ ছেলে ও ১ মেয়ে রয়েছে। তাঁর বাড়ি পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা উপজেলায়।

রোববার উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল হাসপাতালে যান। সেখানে ডাক্তার দেখানো শেষে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিয়ে একটি আবাসিক হোটেলে রাত্রি যাপনের জন্য অবস্থান করেন। পরদিন নিজ বাড়ী পটুয়াখালী জেলায় গলাচিপায় যাবার কথা ছিল তার।

রাত সাড়ে বারোটার দিকে প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট ও বুকে ব্যথা নিয়ে হোটেলেই মারা যান তিনি। আজ সোমবার সকালে গলাচিপায় নিজ বাড়ীতে জানাযা শেষে দাফন সম্পন্ন হয় বলে জানান কাওছার মিয়া। তাঁর মৃত্যুতে পৌর মেয়র আবু ফয়েজ মো. রেজা শোক প্রকাশ করেছেন।

ফরিদপুর শহরের ওয়ারলেস পাড়া এলাকার মুদি দোকানদার রুহুল আমির (৫২) করোনা উপসর্গ নিয়ে সোমবার (৬ জুলাই) সকালে নিজ বাসায় মারা যান। তার বাড়ী মাদারিপুর জেলার শিবচর এলাকায়। তিনি ওয়ালেস পাড়া মসজিদের সামনে মুদি দোকানের ব্যবসা করতো।

স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর আনিছুর রহমান সাবুল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, কয়েকদিন ধরে তিনি অসুস্থ ছিলেন। চিকিৎসকের পরামর্শে বাসায় থাকতেন। তবে তার পরিবার জানিয়েছেন রুহুল আমিরের শরীরে করোনা উপসর্গ ছিলো।

ফরিদপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা গণমাধ্যমকে জানান, সোমবার সকালে করোনা উপসর্গ নিয়ে ঈশান গোপালপুরের শিবরামপুর এলাকার বিল্লাহ হোসেন (৫৫) নামের এক ব্যবসায়ী মারা গেছে। তিনি দুইদিন যাবত অসুস্থ হয়ে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলো। তার করোনা পরীক্ষার জন্য নমূনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

Skip to toolbar