সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সাহারা খাতুনের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন

১:৩৩ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, জুলাই ১০, ২০২০ গুণীজন সংবাদ
sasa

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ চলে গেলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য সাহারা খাতুন। বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১২টায় তিনি থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের একটি হাসপাতালে মারা যান (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর।

১৯৪৩ সালের ১ মার্চ ব্রিটিশ ভারতের বেঙ্গল প্রেসিডেন্সির অন্তর্গত ঢাকার কুর্মিটোলায় জন্ম গ্রহণ করেন তিনি। তার পিতা-মাতা হলেন যথাক্রমে, আব্দুল আজিজ ও টুরজান নেসা।

সাহারা খাতুন ছাত্র জীবনেই রাজনীতিতে যুক্ত হন। ১৯৬৯ সনে আওয়ামী লীগের মহিলা শাখা গঠিত হলে তিনি তাতে সক্রিয় অংশ গ্রহণ শুরু করেন।

২০০৮ সনের ২৯ ডিসেম্বরের সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৮ আসন থেকে মনোনয়ন পেয়ে বিপুল ভোটে জয় লাভ করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০৯ সালে তাকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়। এরপর ২০১২ সালে তিনি ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান। ২০১৪ সনের ৫ জানুয়ারীতে তিনি পুনরায় পুনরায় ঢাকা-১৮ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

২০০৯ সালে বিডিআর বিদ্রোহ হলে তিনি দ্বন্দ্ব সমাধানের চেষ্টা করেন। তিনি তৎকালীন বিডিআর’র বিদ্রোহী সৈনিকদের আত্মসমর্পণ করতে উৎসাহীত করেন ও অস্ত্র জমা দিতে বলেন।

তিনি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, এবং বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক। এছাড়াও তিনি আন্তর্জাতিক মহিলা আইনজীবী সমিতি ও আন্তর্জাতিক মহিলা জোটের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টে একজন আইনজীবী হিসেবে প্র্যাকটিস করতেন।

সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) এক শোকবার্তা প্রধানমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিসেবে সাহারা খাতুন গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা ও মানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে আজীবন কাজ করে গেছেন। দলের দুঃসময়ে নেতাকর্মীদের পাশে থেকে সকল সাহায্য-সহযোগিতা প্রদান করেছেন।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, তার মৃত্যুতে দেশ ও জাতি একজন দক্ষ নারী নেত্রী এবং সৎ জননেতাকে হারালো। আমি হারালাম এক পরীক্ষিত ও বিশ্বস্ত সহযোদ্ধাকে। প্রধানমন্ত্রী মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

Skip to toolbar