সংবাদ শিরোনাম
বাবার কবরের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত সাবেক আইন সচিব জহিরুল হক | জাতীয় দলের আরও ৬ ফুটবলার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত | “আমেরিকার সাথে কূটনৈতিক লড়াই চায় না চীন” | ‘মার্কিন ও ইসরাইলি পরমাণু অস্ত্র সবার জন্য হুমকি’- ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী | কক্সবাজারে এখন থেকে সেনা ও পুলিশের যৌথ টহল চলবে: আইএসপিআর | বৈরুতের বিস্ফোরণে প্রাণহানির ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর শোক | সিনহা হত্যা মামলাঃ প্রদীপসহ ৩ পুলিশ সদস্যের ৭ দিনের রিমান্ড | ২২ ঘণ্টা ঘিরে রাখার পর জানা গেল বস্তুটি বোমা নয়, টাইলস কাটার যন্ত্র | নন্দীগ্রামে দেশীয় অস্ত্রসহ ডাকাত দলের ৪ সদস্য গ্রেফতার | স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রী কিনতে বাংলাদেশকে ৩০ লাখ ডলার দেবে এডিবি |
  • আজ ২২শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সাহারা খাতুনের মরদেহ আসছে রাতে, দাফন শনিবার

৫:৩৯ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, জুলাই ১০, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ
sasa

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুনের মরদেহ আজ মধ্যরাতে দেশে এসে পৌঁছাবে। থাইল্যান্ডের বাংলাদেশ দূতাবাস এ তথ্য নিশ্চিত করে। শনিবার (১১ জুলাই) নামাজের জানাযা শেষে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে।

দীর্ঘদিন বার্ধক্যজনিত নানান জটিলতায় ভুগছিলেন ৭৭ বছর বয়সী এই নারী রাজনৈতিক। গত ২ জুন সাহারা খাতুন জ্বর, অ্যালার্জিসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে অসুস্থ অবস্থায় রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অবস্থার অবনতি হলে গত ১৯ জুন সকালে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। এরপর অবস্থার উন্নতি হলে গত ২২ জুন দুপুরে তাকে আইসিইউ থেকে এইচডিইউতে (হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিট) স্থানান্তর করা হয়।

২৬ জুন সকালে তার শারীরিক অবস্থার আবারও অবনতি হয়। ফের নেয়া হয় আইসিইউতে। এরপর উন্নত চিকিৎসার জন্য ৬ জুলাই এয়ার অ্যাম্বুলেন্সেযোগে থাইল্যান্ডে নেয়া হয় সাহারা খাতুনকে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে মারা যান তিনি।

সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিসেবে সাহারা খাতুন গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা ও মানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে আজীবন কাজ করে গেছেন। দলের দুঃসময়ে নেতাকর্মীদের পাশে থেকে সকল সাহায্য-সহযোগিতা প্রদান করেছেন।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, তার মৃত্যুতে দেশ ও জাতি একজন দক্ষ নারী নেত্রী এবং সৎ জননেতাকে হারালো। আমি হারালাম এক পরীক্ষিত ও বিশ্বস্ত সহযোদ্ধাকে। প্রধানমন্ত্রী মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

উল্লেখ্য ১৯৪৩ সালের পহেলা মার্চ ঢাকার কুর্মিটোলায় জন্ম গ্রহণ করেন সাহারা খাতুন। তিনি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, এবং বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এছাড়াও তিনি আন্তর্জাতিক মহিলা আইনজীবী সমিতি ও আন্তর্জাতিক মহিলা জোটের সদস্য। তিনি বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টে একজন আইনজীবী হিসেবে তার কর্মজীবন শুরু করেন।

সাহারা খাতুন ছাত্র জীবনেই রাজনীতিতে যুক্ত হন। তিনি ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন। তিনি বাংলাদেশ সরকারের প্রথম মহিলা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী ছিলেন।

Skip to toolbar