সংবাদ শিরোনাম
জীবনসঙ্গিনী খুঁজে নিলেন চাহাল | এবার ১২০০ কোটি রুপি ব্যয়ে আকাশছোঁয়া ‘হনুমানের মূর্তি’ তৈরি হচ্ছে ভারতে | লাদাখ সীমান্তে উত্তেজনা বৃদ্ধি, আবারো চীনা সেনা মোতায়েনের দাবি ভারতের | হাজিদের পাথর নিক্ষেপে পদদলিত হয়ে মৃত্যু থামিয়ে ছিলেন এই বাংলাদেশি ইঞ্জিনিয়ার | লামায় ৯ বছরের শিশু ধর্ষিত, ধর্ষক আটক | পিরোজপুরে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের দুই ভুয়া কর্মকর্তা গ্রেপ্তার | বঙ্গমাতার জন্মদিন উপলক্ষে তানোরে সেলাই মেশিন বিতরণ | ‘করোনার চেয়েও বড় সংকট হয়তো সামনে আসছে’- বিল গেটস | সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিচার্জ | কাউখালীতে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের চেষ্টা, লম্পট গ্রেফতার |
  • আজ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

উইঘুর ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পাল্টা নিষেধাজ্ঞা চীনের

৮:৩৯ অপরাহ্ণ | সোমবার, জুলাই ১৩, ২০২০ আন্তর্জাতিক
us-china

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ জিনজিয়াং প্রদেশে সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিমদের মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে চীনের বেশ কয়েকজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আরোপিত নিষেধাজ্ঞার পাল্টা ব্যবস্থা নিয়েছে বেইজিং। সোমবার চীনের কট্টর সমালোচক হিসেবে পরিচিত যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে বেইজিং।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনিং সোমবার নিষেধাজ্ঞার তালিকা প্রকাশ করেছেন। নিষেধাজ্ঞায় পড়া মার্কিন কর্মকর্তারা হচ্ছেন- সিনেটর ট্রেড ক্রুজ, সিনেটর মার্কো রুবিও, প্রতিনিধি পরিষদের সদস্য ক্রিস স্মিথ এবং আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতা বিষয়ক অ্যাম্বাসেডর এট লার্জ স্যাম ব্রাউনব্যাক। এছাড়া, চীন বিষয়ক মার্কিন কংগ্রেসনাল-এক্সেকিউটিভ কমিশনের ওপরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

হুয়া চুনয়িং বলেন, ‘চীনের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া নিষেধাজ্ঞা বিশ্ব রাজনীতিতে বৈরী প্রভাব ফেলবে। এমনকি যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি তো করবেই। চীন এই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। চীনের এই সিদ্ধান্তকে অমান্য করার কোনো সুযোগ নেই।’

চীনের দেয়া এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকা ব্যক্তিগণ চীনের কোনো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে লেনদেন অথবা চীন ভ্রমণ করতে পারবেন না। চীন অথবা চীনের মিত্র কোনো দেশর সঙ্গে এই কর্মকর্তারা যুক্ত হতে পারবেন না কোনো বাণিজ্যিক কার্যক্রমে।

এর আগে, উইঘুর মুসলিমসহ সংখ্যালঘুদের মানবাধিকার লংঘনের অভিযোগে ৪ চীনা কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। চীনের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিসি) পলিটব্যুরোর সদস্য চেন কাংগুয়ো এবং আরো তিন কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এ নিষেধাজ্ঞার কারণে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে এই চীনা কর্মকর্তাদের কোনোরকম লেনদেন নিষিদ্ধ হওয়াসহ তাদের সম্পদ জব্দ হওয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণও নিষিদ্ধ করা হয়।

পশ্চিমা বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন এবং জাতিসংঘও দীর্ঘদিন ধরে বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে উইঘুর ও অন্যান্য সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অসংখ্য মানুষকে আটক, ধর্মীয় নিপীড়ন করাসহ নারীদেরকে জোর করে বন্ধ্যা করানোর অভিযোগ করে আসছে। তবে চীন শুরু থেকেই শিনজিয়াংয়ে মুসলিমদের উপর নির্যাতন, নিপীড়নের সব অভিযোগ অস্বীকার করে এসেছে।

Skip to toolbar