সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সাহেদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে যা বললেন ডাক্তার

৮:৩৩ অপরাহ্ণ | বুধবার, জুলাই ১৫, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ
saa

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট জালিয়াতির অভিযোগে গ্রেফতার রিজেন্ট হাসপাতালের কর্ণধার মো. সাহেদকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) চেকাপ করা হয়েছে। বুধবার (১‌৫ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে তাকে হাসপাতালে আনা হয়।

ঢামেক জরুরি বিভাগের আবাসিক সার্জন ডা. আলাউদ্দিন বলেন, ‘সাহেদ বুকে ব্যথার কথা বলেছিলেন। তার এক্সরে ও ইসিজি করা হয়েছে। সব রিপোর্ট ভালো এসেছে, কোনও সমস্যা নেই। তাকে আবার র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) নিয়ে চলে গেছে।’

ঢাকা মেডিক্যাল পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া জানান, সাহেদের সঙ্গে এসময় মাসুদ পারভেজ নামে আরেকজন ছিলেন।

এর আগে বুধবার (১৫ জুলাই) ভোরে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার কোমরপুর গ্রামের লবঙ্গবতী নদীর তীর সীমান্ত এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। তিন ভারতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন।

প্রসঙ্গত, গত ৬ জুলাই র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমের নেতৃত্বে রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা ও মিরপুর কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়। পরীক্ষা ছাড়াই করোনার সনদ দিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা ও অর্থ হাতিয়ে নিয়ে আসছিল তারা। র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত অন্তত ছয় হাজার ভুয়া করোনা পরীক্ষার সনদ পাওয়ার প্রমাণ পায়।

একদিন পর গত ৭ জুলাই স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশে র‌্যাব রিজেন্ট হাসপাতাল ও তার মূল কার্যালয় সিলগালা করে দেয়। রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে ওই দিনই উত্তরা পশ্চিম থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়। এরপর থেকে সাহেদ পলাতক ছিলেন।

সাহেদের খোঁজে সোমবার মৌলভীবাজারে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালানো হলেও সেখানে তাকে পাওয়া যায়নি। পরে বুধবার (১৫ জুলাই) ভোর সাড়ে পাঁচটায় সাতক্ষীরার দেবহাটা সীমান্ত থেকে অবৈধ অস্ত্রসহ তাকে গ্রেফতার করা হয়।

Skip to toolbar