সংবাদ শিরোনাম
দিনাজপুরে ভুয়া নারী চিকিৎসককে এক মাসের জেল,ক্লিনিক সিলগালা | র‌্যাব ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ারের আল্টিমেটাম | ‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে খেলাধুলা পরিচালনা করা যাবে’- ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী | বেনাপোলে আমদানি নিষিদ্ধ ভারতীয় ওষুধ সহ পাচারকারী আটক | ভারতে ৪০ দিন কারাভোগের পর দেশে ফিরলেন তাবলীগ জামায়াতের ৮ নারীসহ ১৭ জন | বাম্পার ফলন হলেও দাম কম থাকায় হতাশ হবিগঞ্জের লেবু চাষিরা | রাজবাড়ীতে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া অনুদানের চেক পেলেন সাংবাদিকরা | মাগুরায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫৮৫ | “খাগড়াছড়িতে পৌর সদরের চার লেন সড়কের কাজ শুরু” | ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে মানুষকে সচেতন করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর |
  • আজ ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ভারতে মাত্র ৪ দিনেই দুই লাখেরও বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত

৮:৫০ অপরাহ্ণ | শনিবার, আগস্ট ১, ২০২০ আন্তর্জাতিক
indd

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভারতে প্রতিদিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা উত্তরোত্তর বাড়ছে। গত চার দিনে প্রায় দুই লাখেরও বেশি মানুষ নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড শনাক্তে ১৭ লাখ ছুঁতে চলেছে করোনা রোগীর সংখ্যা। পাশাপাশি দেশজুড়ে বেড়েছে সংক্রমণের হার। তবে, পূ্র্বের তুলনায় বেড়েছে সুস্থতাও।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ৫৭ হাজার ১১৮ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এক দিনে দেশটিতে সর্বোচ্চ শনাক্তের সংখ্যা এটি। এ নিয়ে দেশটিতে এ পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬ লাখ ৯৫ হাজার ৯৮৮।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা সংক্রমণে মারা গেছেন আরো ৭৬৪ জন। এ নিয়ে দেশটিতে করোনা সংক্রমণে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৩৬ হাজার ৫১১ জন। আর এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১০ লাখ ৯৪ হাজার ৩৭৪ জন। সুস্থতার হার ৬৪ দশমিক ৫২ শতাংশ।

ভারতে এ পর্যন্ত এক কোটি ৯৩ লাখ ৫৮ হাজার ৬৫৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। দেশটিতে এক সপ্তাহ ধরে দৈনিক ৪৫ হাজারেরও বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে সর্বাধিক সংক্রমণ ছড়িয়েছে মহারাষ্ট্রে। তারপরেই তামিলনাড়ু, দিল্লি, গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ, কর্নাটক এবং তেলেঙ্গানা। এদিকে, বিশ্ব তালিকায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ব্রাজিলের পরে বিশ্বের তৃতীয় সর্বোচ্চ করোনাক্রান্ত দেশ হলো ভারত।

এদিকে শুক্রবার মহারাষ্ট্রে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজারের বেশি মানুষ। এতে করে এ রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ১০ ছাড়িয়ে গেছে। মৃত্যু হয়েছে ১৪ হাজার ৯৯৪ জনের।

রাজধানী দিল্লিতে করোনার থাবায় প্রাণ গেছে ৩ হাজার ৯৬৩ জনের। আর ভুক্তভোগীর সংখ্যা বেড়ে ১ লাখ ৪০ হাজার ৯৩৩ জনে দাঁড়িয়েছে। বর্তমানে সেখানে কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসতে শুরু করেছে করোনার দাপট।

তামিলনাড়ুতে এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৪৫ হাজার ৮৫৯ জনের শরীরে ভাইরাসটির সংক্রমণ পাওয়া গেছে। যেখানে প্রাণহানি ঘটেছে ৩ হাজার ৯৩৫ জনের।

সংক্রমণ ঠেকাতে ভারতে প্রথমদিকে সামাজিক দূরত্বের উপর জোর দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন লকডাউনের কড়াকড়ি নেই। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড শুরু হওয়ায় বাজার-হাট, গণপরিবহনে বেড়েছে লোকের ভিড়। বেড়েছে একে অপরের সংস্পর্শে আসার সম্ভাবনাও। তাই, প্রতিদিনই আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা।

Skip to toolbar