এইমাত্র
  • সব গুঞ্জন ছাপিয়ে আমেরিকান ক্লাব ইন্টার মায়ামিতে গেলেন লিওনেল মেসি
  • রাজধানীতে ঝিরিঝিরি বৃষ্টি
  • সৌদিতে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে রেমিট্যান্স যোদ্ধার মর্মান্তিক মৃত্যু
  • কুড়িগ্রামে ৫ম শ্রেণির ছাত্রকে হত্যার অভিযোগে কিশোর গ্রেফতার
  • ১০-১৫ দিন পর দেশে আর বিদ্যুতের কষ্ট থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী
  • বিয়ে প্রসঙ্গে শাকিব খানকে বেছে নিলেন ইধিকা পাল!
  • স্মার্ট লুটপাটের বাজেট দেওয়া হয়েছে: মির্জা ফখরুল
  • বাজারে বেড়েছে সোনার দাম
  • বিএনপি ভোট চোর নয়, ভোট ডাকাত: শেখ হাসিনা
  • জাবিতে অনশনরত শিক্ষার্থীর ওপর হামলা তোপের মুখে উপাচার্য
  • আজ বৃহস্পতিবার, ২৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০ | ৮ জুন, ২০২৩
    দেশজুড়ে

    ৬৫ দিনের জন্য সাগরে মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা শুরু

    মাহমুদুর রহমান, বরগুনা প্রতিনিধি প্রকাশ: ২০ মে ২০২৩, ০১:২২ পিএম
    মাহমুদুর রহমান, বরগুনা প্রতিনিধি প্রকাশ: ২০ মে ২০২৩, ০১:২২ পিএম

    ৬৫ দিনের জন্য সাগরে মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা শুরু

    মাহমুদুর রহমান, বরগুনা প্রতিনিধি প্রকাশ: ২০ মে ২০২৩, ০১:২২ পিএম

    মাছের প্রজনন ও উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে সাগরে মাছ শিকারে টানা ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা জারি করে থাকে প্রতিবছর মৎস্য বিভাগ।

    আজ শনিবার (২০ মে) রাত ১২:০১ মিনিট থেকে টানা ৬৫ দিনের জন্য সারাদেশে মৎস আহরণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে মৎস্য বিভাগ।

    এই নিষেধাজ্ঞার সময় সামুদ্রিক মাছ আহরণ, ক্রয় বিক্রয়, বিপণন, মজুদ ও পরিবহন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। নিষেধাজ্ঞার কারণে সাগর থেকে ফিরেছে বরগুনা জেলার সকল সমুদ্রগামী জেলেরা।

    গতকাল শুক্রবার সকাল থেকেই জাল ও ফিশিং ট্রলার নিয়ে ঘাটে ফিরতে শুরু করে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে যাওয়া জেলেরা। অনেক ট্রলার মালিক ট্রলার মেরামত বা রঙ করার জন্য ট্রলারগুলোকে ডকইয়ার্ড এ তুলেছেন।

    বরগুনা জেলা মৎস অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, ৬৫ দিনের এই নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন বরগুনার ২৭ হাজার ২৭৭ জন জেলেকে ১ হাজার ৫২৬ মেট্রিক টন চাল সহায়তা দেওয়া হবে। নিষেধাজ্ঞার ৬৫ দিনে নিবন্ধিত প্রতি জেলে পাবেন ৮৬ কেজি করে চাল। এ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে কমপক্ষে ১ থেকে ২ বছরের কারাদণ্ড বা পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হতে পারে।

    সাগর থেকে ফিরে আসা জেলেরা বলেন, সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী এখন থেকে আর সাগরে যেতে পারব না। এই ৬৫ দিন কোনো আয় ইনকাম হবে না। শুধু চাল দিয়েই তো আর পেট চলে না, চালের সঙ্গে আরও অনেক কিছুর দরকার আছে। সবমিলিয়ে এমনিই আমরা ঋণগ্রস্ত। তার ওপর এই ৬৫ দিনে ধার দেনা করে চলতে হবে। সরকারের পক্ষ থেকে আরও বেশি সহযোগিতা পেলে আমাদের সংকট দূর হতো।

    বরগুনা মৎসজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বলেন, সকল ট্রলারের মাঝি ও জেলেরা ঘাটে ফিরেছেন। সকল ট্রলার জেলেদের নিয়ে ইতোমধ্যে ঘাটে পৌঁছে গেছে। সাগর থেকে আসা এসব ট্রলারগুলোকে বিএফডিসি সংলগ্ন খালে নোঙর করে রাখা হবে।

    বরগুনা জেলা মৎস কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার দেব বলেন, কোনো অসাধু জেলেরা যাতে নিষেধাজ্ঞা অমান্য না করতে পারে সেজন্য এই অবরোধ সফল করতে নৌ বাহিনী, জেলা মৎস অধিদফতর, কোস্টগার্ড, জেলা ও উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ, নৌ-পুলিশ এবং স্থানীয় মৎস্য বিভাগসহ মোট ১১টি টিম কাজ করবে।

    ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে জেলেদের মাছ না ধরায় উদ্বুদ্ধ করার জন্য ইতোমধ্যে বিভিন্ন যায়গায় মাইকিং করা হয়েছে। ব্যাপকভাবে অভিযান পরিচালনা করা হবে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত চালানো হবে। তবে এ সময় জেলেরা যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হন সেদিকেও নজর দেওয়া হয়েছে। প্রত্যেক জেলেদের বিশেষ ভিজিএফের মাধ্যমে খাদ্যসহায়তা দেওয়া হবে।

    ট্যাগ :

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…