সংবাদ শিরোনাম

ইরানের পরমাণু বিজ্ঞানী হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় যা বললেন বাইডেন | শেখ হাসিনার প্রশংসায় কমনওয়েলথ মহাসচিব | সারাদেশে পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ২০ | ঠাকুরগাঁওয়ে পরিত্যক্ত ঘরে আগুন লাগিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর অভিযোগ! | অসহায় মানুষের আশ্রয়স্থল নগরকান্দা ব্লাড ডোনার্স ক্লাব | কৃষি বিক্ষোভে ট্রুডোর সমর্থন, কানাডার রাষ্ট্রদূত তলব করে ভারতের প্রতিবাদ | প্রতি শুক্রবার উইঘুর মুসলিমদের শূকর খেতে বাধ্য করে চীন | ছাত্রকে বলাৎকার, মাদ্রাসা শিক্ষককে গণধোলাইয়ের পর পুলিশে দিলেন জনতা | মধ্যরাত থেকে করোনা নেগেটিভ সনদ ছাড়া দেশে প্রবেশ নিষেধ | বিদায় নেয়ার আগে ইরানের ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা ট্রাম্প প্রশাসনের |

  • আজ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরের বিরলে দেবত্তর সম্পত্তি রক্ষায় হিন্দু জনসাধারণের সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত

⏱ ৩:৫৩ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, জুন ১৬, ২০১৬ 📂 দেশের খবর, রংপুর

aaa_0006

শাহ্ আলম শাহী, স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর: বিরলে দেবত্তর সম্পত্তি রক্ষার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে সংবাদ সম্মেলন করেছে একটি গ্রামের ২ শতাধিক মানুষ। বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় উপজেলার রাণীপুকুর ইউপি’র চক বিষ্ণুপুর গ্রামের শ্রী শ্রী ভাঙ্গী ঠাকুর হরি মন্দির চত্বরে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে কমিটির সভাপতি রাজেন চন্দ্র রায়ের পক্ষে ডাঃ বীরেন চন্দ্র রায় লিখিত বক্তব্য পাঠ করে বলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার পূর্ব থেকে একই এলাকার ভটরু চন্দ্র এবং সে মারা গেলে পরে তার সন্তান মলিন চন্দ্র রায় দীর্ঘদিন হতে চক বিষ্ণুপুর মৌজার এস এ ৯৫ নং খতিয়ান ভুক্ত ১৮২ দাগের ১ একর ১৮ শতক সম্পত্তির উৎপাদিত ফসলের অর্থদিয়ে বিগ্রহ পুজাসহ হরিসভা করে আসত। নানা কারণে এলাকাবাসী সম্প্রতি মলিন চন্দ্র রায় কে দেবত্তর কমিটি থেকে বাদ দিলে মলিন ক্ষিপ্ত হয়ে ঐ দেবত্তর সম্পত্তি নিজের দাবী করে বসে। এতে এলাকাবাসীর সাথে তার দ্বন্ধ শুরু হয়। ফলে শুরু হয় মিথ্যা মামলা মোকদ্দমা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত প্রায় ২ শতাধিক বিভিন্ন বয়সের হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ তাদের ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্যে বলেন, আমরা কোন সহিংসতা চাইনা। আমরা শান্তিতে থাকতে চাই। আমাদের দেবত্তর সম্পত্তি কেউ যেন কোন ভাবে আত্মসাৎ করতে না পারে। আমাদের দেবত্তর সম্পত্তি শ্রী শ্রী ভাঙ্গী ঠাকুর বিগ্রহ ও হরী মন্দিরকে ফিরিয়ে দেয়া হোক। এ সম্পত্তিকে কেন্দ্র করে আর যেন কোন মিথ্যা মামলা করা না হয় এবং সহিংস কোন ঘটনা না ঘটে। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, দেবত্তর কমিটির সভাপতি রাজেন চন্দ্র রায়, সাধারণ সম্পাদক যাদব চন্দ্র রায়, এলাকাবাসী রমেশ, মহন, মেলু, ভেগু, নবীন, এনটনি, মিহির কনা, রাজকুমার রঞ্জন, আলেন, বৃষ্টি চন্দ্র বাহিরু, ফটিক, কানু চন্দ্র, নবিনা বালা, এপতি বালা, রনি বালা, জ্যো¯œা বালা, সূর্য বালা, পুর্নিমা বালা, মাইমতি বালা প্রমূখ।